সমালোচকদের সমালোচনায় কামরান আকমল সমালোচকদের সমালোচনায় কামরান আকমল – SportsTour24

স্পোর্টসট্যুর ডেস্ক :: পাকিস্তান ক্রিকেটের সাবেকরা প্রায়ই বর্তমান ক্রিকেটারদের নিয়ে সমালোচনায় মাতেন। অমুক ক্রিকেটারের বয়স হয়ে গেছে তাঁকে বাদ দাও; অমুক ক্রিকেটার দ্রুতগতিতে রান করছে না তাঁকে সরাওসহ নানা বিষয়ে সমালোচনা করা হয়।

 

এই যেমন ক’দিন আগে ইংল্যান্ড সফরে প্রায় ৪০ বছর বয়সী মোহাম্মদ হাফিজকে পাকিস্তান দলে রাখা নিয়ে হয় তুমুল সমালোচনা। তাঁকে বাদ দিয়ে তরুণদের সুযোগ দেওয়ার দাবি তুলেন অনেকেই। কিন্তু দুই ম্যাচের টি-টোয়েন্টি সিরিজে হাফিজই ছিলেন পাকিস্তানের সেরা পারফর্মার।

 

দুটি ম্যাচেই করেন ফিফটি। একটিতে ৩৬ বলে ৬৯, অপরটিতে ৫২ বলে ৮৬ রান আসে তাঁর ব্যাট থেকে। হাফিজের ব্যাটেই সিরিজ ড্র করে পাকিস্তান। সিরিজসেরার পুরস্কার জেতেন তিনি।

 

বাবর আজমকেও সমালোচনার শিকার হতে হয়েছে। পাকিস্তানের বর্তমান সময়ের সেরা এই ব্যাটসম্যান নাকি দ্রুতগতিতে রান করছেন না। অথচ ক’দিন আগেও তিনি ছিলেন আইসিসি টি-টোয়েন্টি র‌্যাঙ্কিংয়ে শীর্ষস্থানে। এখন আছেন দুইয়ে।।

 

এমনসব সমালোচনায় পাকিস্তানের উইকেটকিপার-ব্যাটসম্যান কামরান আকমল ত্যক্ত-বিরক্ত। এক সাক্ষাৎকারে তিনি সমালোচকদের সমালোচনা করেছেন।

 

‘এসব ঘটনা আমি অনেক দেখেছি, কোনো একজন সম্পর্কে না জেনেই লোকে তার শেষ দেখে ফেলে। তারা জানেও না, জাতীয় দলে আসতে ওই ক্রিকেটারকে কতটা কাঠখড় পোড়াতে হয়েছে। খুব সহজেই লোকে বলে দেয়, অমুক শেষ, তার বদলে অন্যকে নাও।’

 

‘আমাদের এখানে সাবেক ক্রিকেটারসহ কতো লোকে বলেছে হাফিজের বদলে অন্য কাউকে নিতে। এখন সেই হাফিজই পাকিস্তানকে জিততে সহায়তা করেছে। ওই লোকগুলোর এখন মুখ দেখানোর উপায় নেই। আশা করি, তাদের এখন শিক্ষা হয়েছে।’

 

বাবর আজমকে সমালোচনার শিকার হওয়াটাকে ‘ট্রাজেডি’ বলছেন কামরান আকমল।

 

‘বড় ট্র্যাজেডি হলো, লোকে আমাদের এক নম্বর ব্যাটসম্যান বাবর আজমের সমালোচনা শুরু করেছে! সে নাকি যথেষ্ট দ্রুতগতিতে রান করছে না বা ম্যাচ জেতাচ্ছে না। অথচ আমাদের উন্নতি করতে হলে, সমালোচনা না করে উৎসাহ দেওয়া উচিত ওকে।’

 

‘দল হিসেবে এগোতে হলে বাবরের মতো একজনের সমালোচনা না করে তাকে প্রেরণা জোগানো উচিত। ম্যানেজমেন্টেরও এটা দায়িত্ব, নিজেদের পছন্দের কয়েকজনের কথা শুধু না ভেবে সব ক্রিকেটারদের দেখভাল করা ও আত্মবিশ্বাস বাড়ানোয় সহায়তা করা।’

শেয়ার করুন :