হোয়াটসঅ্যাপে ‘পথ বাতলে দিচ্ছেন’ বাংলাদেশের কোচ হোয়াটসঅ্যাপে ‘পথ বাতলে দিচ্ছেন’ বাংলাদেশের কোচ – SportsTour24

স্পোর্টসট্যুর প্রতিবেদক :: করোনার ছোবলে খেলাধুলা বন্ধ থাকায় বাংলাদেশ জাতীয় ফুটবল দলের কোচ জেমি ডে বর্তমানে নিজ দেশ ইংল্যান্ডে রয়েছেন। সেখান থেকেই ভার্চুয়ালি জাতীয় দলের সাথে তাঁর নতুন করে দুই বছরের চুক্তি হয়েছে প্রধান কোচ হিসেবে।

 

করোনাকালে জেমি ডে হোয়াটসঅ্যাপের মাধ্যমে যোগাযোগ রাখছেন ফুটবলারদের সাথে। সেখান থেকে দিচ্ছেন নানা দিকনির্দেশনা। কোনো খেলোয়াড়ের অসুবিধা থাকলে সেগুলো সমাধানের পথও বাতলে দিচ্ছেন তিনি।

 

এমনটাই জানালেন জাতীয় দলের ফরোয়ারড মাহবুবুর রহমান সুফিল।

 

আজ মঙ্গলবার বাংলাদেশ ফুটবল ফেডারেশনের (বাফুফে) মাধ্যমে পাঠানো এক ভিডিওবার্তায় সুফিল বলেন, ‘করোনাভাইরাসের সময় ঘরে বসে আমরা কোচের নানা সহযোগিতা পাচ্ছি। দূরে থাকলেও হোয়াটসঅ্যাপ গ্রুপের মাধ্যমে তাঁকে যেন কাছেই পাচ্ছি আমরা। আমাদের অসুবিধাগুলো তাঁকে জানাতে পারছি, তিনি সেগুলো দূর করার পথ বাতলে দিচ্ছেন।’

 

‘গত দুই বছর যাবৎ তাঁর (জেমি ডে) কোচিং সত্যিই ফলপ্রসূ ছিল। আমাদের সাথে তাঁর খুব সহজেই বোঝাপড়া গড়ে উঠেছে। আমরা তাঁর প্রতি কৃতজ্ঞ। এই মহামারিতে আমরা যখন লকডাউনে, তখনও আমরা খুব সহজেই হোয়াটসঅ্যাপের মাধ্যমে তাঁকে কাছে পাচ্ছি, আমাদের অসুবিধাগুলো জানাতে পারছি এবং তিনি আমাদের সাথে সেগুলো নিয়ে কাজও করছেন।’-যোগ করেন সুফিল।

 

জেমি ডের সহকারী হিসেবে দেশে যাঁরা আছেন, তাঁরাও সহযোগিতা করছেন বলে জানালেন সুফিল।

 

‘বিদেশি কোচিং স্টাফদের সাথে স্থানীয় কোচরাও আমাদের সার্বক্ষণিক পরামর্শক ও প্রদর্শক হিসেবে নিয়োজিত থাকেন। যেমন (মাসুদ পারভেজ) কায়সার ভাইয়ের কথা যদি বলি, জেমির সকল কৌশল প্রয়োগের ক্ষেত্রে তার একটি কঠিন ভূমিকা থাকে। সকল খেলোয়াড়দের সাথে তাদের বন্ধুসুলভ আচরণ এবং মাঠের বাইরেও ব্যক্তিগত সকল সমস্যায় তাদের অভিভাবকস্বরূপ আমরা পাশে পাই।’

 

বিশ্বকাপ বাছাইয়ে বাংলাদেশের চারটি ম্যাচ বাকি। সেই ম্যাচগুলো উপলক্ষে জাতীয় ফুটবল দলের ক্যাম্প শুরুর কথা আগস্টের প্রথম সপ্তাহে।

শেয়ার করুন :