সাকিবকে হত্যার হুমকিদাতা গ্রেফতার সাকিবকে হত্যার হুমকিদাতা গ্রেফতার – SportsTour24

স্পোর্টসট্যুর প্রতিবেদক :: সাকিব আল হাসানকে ‘কুপিয়ে কেটে’ হত্যার হুমকিদাতা মহসিন তালুকদারকে গ্রেফতার করেছে র‌্যাব। আজ মঙ্গলবার সকালে সুনামগঞ্জ জেলার দক্ষিণ সুনামগঞ্জের পাঁচগাঁও থেকে তাকে গ্রেফতার করা হয়।

 

স্পোর্টসট্যুর২৪ডটকমকে বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন সিলেট মহানগর পুলিশের (এসএমপি) অতিরিক্ত উপ-কমিশনার বি এম আশরাফ উল্যাহ তাহের।

 

তিনি জানান, র‌্যাবের একটি টিম মহসিন তালুকদারকে গ্রেফতার করেছে। এখন প্রক্রিয়া সম্পন্ন করে তাকে এসএমপির জালালাবাদ থানায় হস্তান্তর করা হবে। যেহেতু তার বিরুদ্ধে এ থানায় মামলা হয়েছে।

 

মহসিন তালুকদার সিলেট সদর উপজেলার জালালাবাদ থানাধীন টুকেরবাজার ইউনিয়নের তালুকদারপাড়া গ্রামের আজাদ বক্সের ছেলে।

 

ভারতের কলকাতায় কালীপূজার ‘উদ্বোধন করতে যাওয়ায়’ বাঁহাতি অলরাউন্ডার সাকিব আল হাসানকে হত্যার হুমকি দেন মহসিন। গত রোববার দিবাগত রাত ১২টা ৬ মিনিটে নিজের ফেসবুক আইডি থেকে লাইভে এসে এই হুমকি প্রদান করেন তিনি। তার হাতে একটি রামদাও দেখা যায়।

 

পরে সোমবার সকালে আরেক লাইভে এসে নিজের রাতের কথাবার্তার জন্য দুঃখপ্রকাশ করেন মহসিন তালুকদার। কিন্তু হুমকির ঘটনায় সোমবার দিনভর তোলপাড় হয়। পরে রাতে মহসিন তালুকদারকে গ্রেফতারে তার বাড়িতে অভিযান চালায় র‌্যাব ও পুলিশ। কিন্তু সেখানে তাকে পাওয়া যায়নি।

 

রাতেই জালালাবাদ থানায় ডিজিটাল নিরাপত্তা আইনে মহসিনের বিরুদ্ধে মামলা করেন উপপরিদর্শক (এসআই) মাহবুব মোর্শেদ।

 

এরপর আজ সকালে র‌্যাবের হাতে ধরা পড়লেন মহসিন তালুকদার।

 

প্রথম লাইভে এসে মহসিন তালুকদার বলেন, ‘‘সাকিব আল হাসান কয়েকদিন আগে দেশে ফিরেছেন। কিছুদিন আগে তিনি হজ্ব করেছেন, তখন খুশি হয়েছিলাম। কিন্তু তিনি এবার দেশে এসে আবার ইন্ডিয়ায় পূজা উদ্বোধন করতে গেলেন। এটা মুসলমানদের কলিজায় আঘাত করেছে। আমি পেলে তাকে কুপিয়ে কুপিয়ে কাটবো।’’

 

পরের লাইভে তিনি বলেন, ‘‘রাতে আমি লাইভে এসে সাকিব আল হাসানকে গালিগালাজ করেছিলাম। কিন্তু ফজরের নামাজে যাওয়ার পর আমার মনে হলো বিষয়টি ঠিক হয়নি। তখন আমি তার হেদায়েতের জন্য দোয়া করেছি। আল্লাহর কাছে বলেছি, আল্লাহ যেন তাকে হেদায়েত দান করেন। যদিও তখন খুব উত্তেজিত হয়ে আমি অনেকগুলো কথা বলেছি। কিন্তু বিষয়টি ঠিক হয়নি। এজন্য আমি দুঃখিত।’’

 

‘সাকিবকে কুপিয়ে কুপিয়ে কাটবো’

সাকিবকে হত্যার হুমকি, মহসিনকে খুঁজছে পুলিশ

ক্ষমা চেয়ে সাকিব বললেন ‘পূজার উদ্বোধন করতে যাইনি’

ভক্তের ফোন ভাঙা নিয়ে মুখ খুললেন সাকিব

সাকিবের খেলা নিয়ে পুলিশ বিভাগের আপত্তি

 

সাকিব কালীপূজার উদ্বোধন করতে কলকাতায় গেছেন, এমনটা বিভিন্ন সংবাদমাধ্যম ও সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে ছড়িয়ে পড়ে। তবে কাল সোমবার সন্ধ্যার পর নিজের ইউটিউব চ্যানেলে ভিডিওবার্তায় সাকিব বিষয়টি অস্বীকার করেন। তিনি দাবি করেন, পূজার অনুষ্ঠান উদ্বোধন করতে নয়, অন্য অনুষ্ঠানে গিয়েছিলেন তিনি। নিজের ‘ভুল’ হয়ে থাকলে ক্ষমাও চান এই বিশ্বসেরা অলরাউন্ডার।

 

সাকিব বলেন, ‘‘প্রথমেই বলতে চাই, আমি নিজেকে একজন গর্বিত মুসলমান হিসেবে মনে করি। আমি সেটাই চেষ্টা করি পালন করার। ভুলত্রুটি হবেই, ভুলত্রুটি নিয়েই আমরা জীবনে চলাচল করি। আমার কোনো ভুল হয়ে থাকলে অবশ্যই আমি আপনাদের কাছে ক্ষমাপ্রার্থনা করছি। নিউজ কিংবা সোশ্যাল মিডিয়া সবখানে এসেছে আমি নাকি পূজার উদ্বোধন করতে গিয়েছি। আমি কখনোই পূজার উদ্বোধন করিনি বা উদ্বোধন করতে যাইনি।’’

 

‘‘এটার প্রমাণ আপনারা অবশ্যই পাবেন। অনেক সাংবাদিক ভাইবোনেরা ওখানে ছিলেন। বা আপনারা ইনভাইটেশন কার্ডও যদি দেখেন, ওখানেই লেখা আছে কে উদ্বোধন করেছেন। যেখানে আমাদের অনুষ্ঠান হয়েছে সেটি পূজা মণ্ডপ ছিল না। পাশে আরেকটি মঞ্চ ছিল। সেখানে অনুষ্ঠান করা হয়েছিল। পুরো অনুষ্ঠান সেখানে হয়। প্রায় ৪০-৪৫ মিনিট ব্যাপী অনুষ্ঠানে আমি ছিলাম এবং সেখানে কোনো ধর্ম-বর্ণ নিয়ে কোনো কথা হয়নি।’’

 

‘‘অনুষ্ঠান শেষে যখন গাড়িতে উঠতে হবে, যেহেতু পাশেই পূজার আয়োজন ছিল, অনেক রাস্তা বন্ধ ছিল। স্বাভাবিকভাবে মণ্ডপ পেরিয়ে আমাকে যেতে হত। যাওয়ার সময় পরেশ দা, যিনি আমাকে আমন্ত্রণ জানিয়েছিলেন, তার আমন্ত্রণে আমি প্রদীপ প্রজ্বলন করি। সাংবাদিকরা অনেক উৎসুক ছিল। সবার অনুরোধে প্রদীপ প্রজ্বলনের সময় সেখানে পরেশ দা’র সাথে দাঁড়িয়ে একটি ছবি তোলা হয়। ছবি তুলে যাওয়ার সময় সাংবাদিকদের সাথে আমার নিরাপত্তাকর্মীদের একটু বাগবিতণ্ডা, হাতাহাতিও হয়। সেই ঘটনায় আমরা ওদিক দিয়ে আর যেতে পারিনি। পরে ফিরে অন্য রাস্তা দিয়ে যাই। পুরো ঘটনাটা এরকম ছিল।’’

শেয়ার করুন :