শিরোপা উঁচিয়ে ধরলো লিভারপুল, সাথে রোমাঞ্চকর জয় শিরোপা উঁচিয়ে ধরলো লিভারপুল, সাথে রোমাঞ্চকর জয় – SportsTour24

স্পোর্টসট্যুর ডেস্ক :: তিন দশকের খরা! অবশেষে সেই খরা কাটিয়ে লিভারপুল ইংলিশ প্রিমিয়ার লিগের (ইপিএল) মুকুট জয় করেছে কিছু দিন আগেই। তবে চ্যাম্পিয়ন হওয়ার ট্রফি ছোঁয়া হয়নি ক্লপদের। অবশেষে ইপিএল চ্যাম্পিয়নদের হাতে উঠলো প্রিমিয়ার লিগের ট্রফি। সাথে চেলসির বিপক্ষে রোমাঞ্চকর এক জয় লিভারপুলের লিগ শিরোপা উঁচিয়ে ধরাকে দিয়েছে ভিন্ন মাত্রা।

 

ঘরের মাঠে লিগের শেষ ম্যাচে লিভারপুলের হাতে ট্রফি তুলে দিয়েছে ইংলিশ প্রিমিয়ার লিগ কর্তৃপক্ষ। ক্লপদের আক্ষেপ শুধু একটাই, ঐতিহাসিক মুহূর্তটির সাক্ষী থাকতে পারলেন না তাঁদের সমর্থকরা। করোনার কারণে স্টেডিয়ামে যে দর্শক প্রবেশ নিষিদ্ধ!

 

কাল রাতে চেলসিকে ৫-৩ গোলে হারিয়ে অ্যানফিল্ডে এবারের মতো প্রিমিয়ার লিগ অভিযান শেষ করেছে লিভারপুল। ম্যাচের প্রথমার্ধে ৩-১ গোলে এগিয়ে যায় লিভারপুল। দ্বিতীয়ার্ধে গোল হয় আরো ৪টি! উভয় দল ভাগাভাগিতে ২টি করে গোল পায়। ৫-৩ গোলের ব্যবধানে জয় নিয়ে মাঠ ছাড়ে রবার্তো ফিরমিনোরা।

 

ম্যাচের ২৩ মিনিটে লিভারপুলের হয়ে গোলের খাতা খোলেন নাবি কেইটা। চেলসির উইলিয়ান বলের নিয়ন্ত্রণ হারালে নাবি কেইটা খানিকটা এগিয়ে প্রায় ২০ গজ দূর থেকে শট নেন। বল ক্রসবারের ভেতরের দিকে লেগে জড়িয়ে যায় জালে।

 

৩৪তম মিনিটে ট্রেন্ট-আলেক্সান্ডার আর্নল্ডের বাঁকানো ফ্রি কিক ফের কাঁপিয়ে দেয় চেলসির জাল। ৪৩তম মিনিটে কর্নারের পর ডি-বক্সে বল পান জর্জিনিও ভেইনালডাম। সুযোগসন্ধানী শটে তিনি স্কোরলাইন ৩-০ করেন।

 

এ অর্ধে যোগ করা সময়ে ব্যবধান কমান চেলসির অলিভিয়ের জিরার্ড। উইলিয়ানের শট লিভারপুলের গোলরক্ষক ঠেকালেও বল নিয়ন্ত্রণে রাখতে পারেন নি। ফিরতি বল পেয়ে গোল করেন জিরার্ড।

 

দ্বিতীয়ার্ধে, ম্যাচের ৫৫তম মিনিটে আলেক্সান্ডার-আর্নল্ডের ক্রস থেকে দারুণ হেডে গোল করেন রবার্তো ফিরমিনো।

 

৬১তম মিনিটে ব্যবধান কমায় চেলসি। ক্রিস্টিয়ান পুলিসিকের ক্রসে ট্যামি আব্রাহামের শট ঝাঁপিয়ে পড়েও ঠেকাতে পারেন নি অ্যালিসন। স্কোরলাইন হয় ৪-২।

 

২১ বছর তরুণ ফরোয়ার্ড পুলিসিক গোল করেন ৭৩তম মিনিটে। ক্যালাম হাডসন-ওডোইয়ের বাড়ানো উঁচু ক্রস বুক দিয়ে নামিয়ে নিখুঁত শটে লক্ষ্যভেদ করে চেলসিকে গোল এনে দেন পুলিসিক।

 

৪-৩ স্কোরলাইনের ম্যাচ তখন আরও জমে ওঠে। তবে ৮৪তম মিনিটে পাল্টা আক্রমণ থেকে ফের গোল পেয়ে যায় লিভারপুল। বাঁ প্রান্ত থেকে ডিফেন্ডার রবার্টসনের ক্রস থেকে বল পেয়ে জালে জড়িয়ে দেন অ্যালেক্স অক্সলেড-চেম্বারলেইন।

 

নিজেদের মাঠে অপরাজিত থেকেই এবার লিগ অভিযান শেষ করলো লিভারপুল। ঘরের মাঠে ১৯টি ম্যাচ খেলে ১৮টিতেই জয় পেয়েছে ‘অল রেড’রা। শুধুমাত্র বার্নলির বিপক্ষে ম্যাচে ড্র করে তাঁরা।

 

এই জয়ে লিগে এক মৌসুমে নিজেদের ইতিহাসে সর্বোচ্চ ৩১ ম্যাচে জয়ের রেকর্ড গড়লো লিভারপুল।

 

হারের ফলে চেলসিকে আপাতত চ্যাম্পিয়ন্স লিগের জন্য অপেক্ষায় থাকতে হচ্ছে। যদি তাঁরা পয়েন্ট পেত, তবে নিশ্চিত হয়ে যেত চ্যাম্পিয়ন্স লিগ।

 

লিগে লিভারপুলের পয়েন্ট এখন ৩৭ ম্যাচে ৩১ জয় আর ৩ ড্রয়ে ৯৬। শেষ ম্যাচে নিউক্যাসলের বিপক্ষে জিতলেও লিভারপুলের পয়েন্ট হবে ৯৯। ১০০ পয়েন্ট থেকে মাত্র ১ পয়েন্ট কম!

 

৩৭ ম্যাচে ৬৩ পয়েন্ট নিয়ে চতুর্থ স্থানে আছে চেলসি।

শেয়ার করুন :