‘লাস্ট ওয়ার্নিং’ দিলেন অশ্বিন ‘লাস্ট ওয়ার্নিং’ দিলেন অশ্বিন – SportsTour24

স্পোর্টসট্যুর ডেস্ক :: আইপিএলের গেল আসরে অন্যতম আলোচিত ঘটনা ছিল ‘মানকাড আউট’। রাজস্থান রয়্যালসের ব্যাটসম্যান জস বাটলার ছিলেন ব্যাটিংয়ে, বোলিংয়ে কিংস ইলেভেন পাঞ্জাবের রচিন্দ্রন অশ্বিন। অশ্বিন বল ডেলিভারি দেওয়ার আগেই পপিং ক্রিস ছেড়ে যান বাটলার। বল ডেলিভারি না দিয়ে বাটলারকে আউট করেন অশ্বিন।

 

এ নিয়ে ওই সময় তুমুল বিতর্ক হয়। অশ্বিন ক্রিকেটের নিয়মের মধ্যে থেকেই আউট করলেও এটাকে ‘স্পিরিটবিরোধী’ বলে আখ্যা দেয় ক্রিকেটের সবচেয়ে প্রাচীন ও ঐতিহ্যবাহী সংস্থা মেরিলিবোন ক্রিকেট ক্লাব (এমসিসি)।

 

তবে রবিচন্দ্রন অশ্বিন বলে রেখেছিলেন, সুযোগ পেলে তিনি ফের ‘মানকাড আউট’ করবেন।

 

তবে এ ধরনের আউটের বিপক্ষে অবস্থান নিয়েছিলেন দিল্লি ক্যাপিটালস কোচ রিকি পন্টিং, যিনি ওই সময় এমসিসি কমিটিতে ছিলেন। পন্টিংয়ের মতে, ‘মানকাড আউট’ ব্যাটসম্যানকে আউট করতে আদর্শ উপায় নয়।

 

অশ্বিন এবার দিল্লি ক্যাপিটালসে খেলছেন।

 

কাল সোমবার দুবাই আন্তর্জাতিক স্টেডিয়ামে সুযোগ পেয়েও রয়্যাল চ্যালেঞ্জার্স ব্যাঙ্গালোরের অস্ট্রেলিয়ান ওপেনার অ্যারন ফিঞ্চকে ‘মানকাড আউট’ না করে সতর্ক করে দেন অশ্বিন।

 

রান তাড়ায় নামা ব্যাঙ্গালোরের ইনিংসের তৃতীয় ওভারের ঘটনা ছিল এটি। অশ্বিন ওভারের চতুর্থ বলটি করার আগেই পপিং ক্রিজ ছেড়ে এগিয়ে যান নন-স্ট্রাইকে থাকা ফিঞ্চ। অশ্বিন তা দেখতে পেয়ে বল না করে থেমে যান। কিন্তু ‘মানকাড আউটের’ সুযোগ থাকলেও করেন নি তিনি। বরং হালকা রসিকতা করেন ফিঞ্চের সাথে।

 

অনেকটা এগিয়ে যাওয়া ফিঞ্চ এসব টেরই পাননি, তিনি তখন তাকিয়ে স্ট্রাইকে থাকা ব্যাটসম্যান দেবদ্যুত পাডিক্কালের দিকে। পরে আম্পায়ার নিতিন মেনন সতর্ক করেন ফিঞ্চকে।

 

ম্যাচে দিল্লি করেছিল ১৯৬ রান। বিরাট কোহলির ব্যাঙ্গালোরো থামে ১৩৭ রানে। ৫৯ রানে জয় পান অশ্বিনরা।

 

ম্যাচের জয় চাপিয়ে অশ্বিনের ‘মানকাড আউট’ না করা নিয়েই চলছে বেশি আলোচনা। কেউ কেউ বলছেন, তিনি গেল আসরের বিতর্ক থেকে শিক্ষা নিয়েছেন। কারও ধারণা, পন্টিংয়ের ছোঁয়ায় বদলেছেন অশ্বিন।

 

কিন্তু রবিচন্দ্রন অশ্বিন বলছেন, চলতি বছরের জন্য এটাই ‘লাস্ট ওয়ার্নিং’। এরপর আর তিনি ব্যাটসম্যানদের সতর্ক করবেন না, সোজা আউট করবেন।

 

টুইটারে অশ্বিন লিখেছেন, ‘বিষয়টা পরিষ্কার করতে দিন। ২০২০ এর জন্য এটাই প্রথম ও শেষ সতর্কবাণী। আমি এটা আনুষ্ঠানিকভাবেই বলছি এবং পরে আমাকে (এ ধরনের আউট করার জন্য) দোষারূপ করবেন না।’

শেয়ার করুন :