‘মোমেন্টাম’ বদলে দেওয়ার চেষ্টায় ব্রডের ‘পাগলামো’ ‘মোমেন্টাম’ বদলে দেওয়ার চেষ্টায় ব্রডের ‘পাগলামো’ – SportsTour24

স্পোর্টসট্যুর ডেস্ক :: স্টুয়ার্ট ব্রডের ব্যাটিং সামর্থ্য এর আগেও দেখা গেছে। ২০১০ সালে পাকিস্তানের বিপক্ষে তো ১৬৯ রানের ঝলমলে এক ইনিংসও আছে তাঁর। যদিও পরবর্তীতে এই পেসার ১০-১১ নম্বরেই বেশি ব্যাট করেছেন।

 

নিজের পুরনো ঝলক কাল ফের দেখালেন ব্রড। ইংল্যান্ড যখন বিপদে, তখন ৪৫ বলে ৬২ রানের দারুণ ইনিংস খেলেছেন দীর্ঘদেহী এই পেসার। ৩৩ বলে করেন ফিফটি।

 

ব্রড ঝড়ের কল্যাণে ইংল্যান্ড নিজেদের প্রথম ইনিংসে তুলে ৩৬৯ রান। ওয়েস্ট ইন্ডিজ ব্যাটিংয়ে নেমে দ্বিতীয় দিন শেষ করেছে ৬ উইকেটে ১৩৭ রান তুলে। ফলোঅন এড়ানো কঠিনই হবে হোল্ডারদের জন্য।

 

দ্বিতীয় দিন শেষে স্টুয়ার্ট ব্রড বলছেন, তিনি ব্যাটিংয়ে নেমে ‘মোমেন্টাম’ বদলে দেওয়ার চেষ্টা করেছিলেন। এ চেষ্টা থেকেই করেছেন ‘পাগলামো’ ব্যাটিং।

 

ব্রড জানান, তাঁর ‘মেন্টর’, সাবেক ইংল্যান্ড কোচ ও এখন নটিংহ্যামশায়ার কোচ পিটার মুরসের পরামর্শে ওয়ার্নকে অনুসরণ করেছেন তিনি।

 

‘কৌশলগত দিক থেকে ঠিক কাজটিই করেছি, নটিংহ্যামশায়ারে পিটার মুরসের সঙ্গে কাজ করেছি যা নিয়ে। শেন ওয়ার্নের উদাহরণ দেখিয়েছিলেন তিনি। ব্যাটিংয়ের সময় ওয়ার্নকে খব দৃষ্টিনন্দন লাগতো না, কিন্তু মাঠের নানাপ্রান্তে বল পাঠাতে পারতো এবং খুব কার্যকর ছিল, বিশেষ করে ২০০৫ অ্যাশেজে। তো, এই পাগলামোর পেছনে কিছুটা চিন্তা-ভাবনাও ছিল। তবে আমি মাঠে সময়টা উপভোগ করেছি।’

 

৩৪ বছর বয়সী এই পেসার জানান, ব্যাট হাতে নামার সময় প্রতিআক্রমণে প্রতিপক্ষকে ভড়কে দেওয়াই ছিল তাঁর লক্ষ্য।

 

‘আমার রানগুলো দলের জন্য খুব গুরুত্বপূর্ণ ছিল। ব্যাপারটি ছিল, খেলার ধারা বদলে দেওোর চেষ্টা করা। সকালে ওয়েস্ট ইন্ডিজ দারুণ বোলিং করেছে। আমার মনে হচ্ছিল, গিয়ে যদি প্রথাগত পথেই খেলি, আমার আউট হওয়াও কেবল সময়ের ব্যাপার। আমি তাই মোমেন্টাম বদলে দেওয়ার চেষ্টা করেছি। বোলারদের লেংথ থেকেই খেলার চেষ্টা করেছি।’

শেয়ার করুন :