মেসি-বার্সা বিচ্ছেদে যতো বাধা মেসি-বার্সা বিচ্ছেদে যতো বাধা – SportsTour24

স্পোর্টসট্যুর ডেস্ক :: বার্সেলোনার ইতিহাসে এমন দিন আর কবে এসেছিল, কে জানে! দলের সর্বকালের সেরা তারকা অভিমান নিয়ে, ক্ষুব্ধ হয়ে দল ছেড়ে দিচ্ছেন!

 

যে কারণে বার্সেলোনা ছাড়ছেন মেসি

 

মেসির দল ছাড়ার সিদ্ধান্ত নিয়ে এতো দিন যা গুঞ্জন, জল্পনায় সীমাবদ্ধ ছিল, এখন তা-ই বাস্তব। সর্বকালের অন্যতম সেরা ফুটবলার লিওনেল মেসি বার্সা ছাড়তে চেয়ে নিজের আইনজীবীর মাধ্যমে প্রত্যয়নপত্র পাঠিয়ে দিয়েছেন ক্লাবের বোর্ড সভাপতিকে।

 

কিন্তু মেসি চাইলেই বার্সার সাথে তাঁর বিচ্ছেদ হয়ে যাবে, বিষয়টি এতো সহজ নয় বোধহয়। কারণ, এখানে চুক্তির নানা জটিলতা আছে। নানা মারপ্যাঁচ আছে।

 

বার্সা ছেড়ে মেসি যে ক্লাবেই যান না কেন, সেটি হবে শতাব্দির সবচেয়ে আলোচিত দলবদল। এক্ষেত্রে যেসব বাধা আছে, সেদিকে আলোকপাত করেছেন স্পেনের পত্রিক দৈনিক এএস।

 

•মেসির বেতন কতো?
লিওনেল মেসিকে যে দলই পেতে চাইবে, তাঁদেরকে গুনতে হবে বিশাল অঙ্কের টাকা। বর্তমান সময়ে মেসি সবচেয়ে বেশি আয় করা ফুটবলার বলে মাস কয়েক আগে জানিয়েছিল বিখ্যাত ফরাসি সংবাদমাধ্যম লে’কিপ। বার্সা থেকে প্রতি মাসে মেসি নাকি কর দেওয়ার পরও বেতন পান ৮৩ লাখ ইউরো! বছরে এ অঙ্কের পরিমাণ দাঁড়ায় ৯ কোটি ৯৬ লাখ ইউরো!

 

এতো বেশি বেতন দিয়ে অন্য কোনো ক্লাব কী মেসিকে নিতে চাইবে?

 

যে তিন ক্লাবে যেতে পারেন মেসি

 

•মেসির রিলিজ ক্লজ কতো?
মেসি বার্সেলোনা ছাড়তে চাইছেন, কিন্তু দল তাঁকে ছাড়তে নারাজ। বিষয়টা এমন হলে কী হবে? তখন আসবে ‘রিলিজ ক্লজের’ বিষয়টি। মানে হচ্ছে, ক্লাবের অনিচ্ছা সত্ত্বেও কেউ মেসিকে কিনতে চাইলে দিতে হবে ৭০ কোটি ইউরো!

 

ফুটবল ইতিহাসে এখন অবধি সবচেয়ে দামি দলবদল হয়েছে ব্রাজিলের তারকা নেইমারের ক্ষেত্রে। ২০১৭ সালে বার্সা ছেড়ে পিএসজিতে যাওয়ার ক্ষেত্রে নেইমারের রিলিজ ক্লজ ছিল ২২ কোটি ২০ লাখ ইউরো।

 

নেইমারের চেয়ে তিন গুণ বেশি টাকা খরচ করে মেসিকে কোন ক্লাব কিনতে চাইবে? যেখানে মেসির বয়স হয়ে গেছে ৩৩ বছর।

 

•চুক্তি বাতিলের ধারায় কী আছে?
বার্সার সঙ্গে মেসির যে চুক্তি, সেখানে একটি বিশেষ ধারা বা শর্ত আছে। যে ধারা বাস্তবায়ন হলে কোনো ক্লাব মেসিকে পেতে চাইলে এক টাকাও খরচ করতে হবে না!

 

ধারাটি হলো, মেসি যদি চান, তবে কোনো মৌসুম শেষ হওয়ার পর ক্লাব ছাড়তে পারবেন বিনামূল্যে। অর্থাৎ, মৌসুম শেষে তিনি ‘ফ্রি ফুটবলার’ হয়ে যেতে পারবেন।

 

মেসি ঠিক এ ধারাতেই এবার বার্সা ছাড়তে চাইছেন। কিন্তু জটিলতা আছে এখানেও। এই ধারা কার্যকর করতে হলে ১০ জুনের ২০ দিন আগে ক্লাব ছাড়ার সিদ্ধান্তের কথা জানাতে হতো। কিন্তু মেসি জানিয়েছেন আগস্টের ২৫ তারিখে এসে। এক্ষেত্রে বার্সা বোর্ড ওই ধারা মানতে চাইবে বলে মনে হয় না।

 

তবে মেসির পক্ষে যুক্তি হচ্ছে, মহামারি করোনার কারণে এবার ফুটবল মৌসুম স্বাভাবিকভাবে চলেনি। তিন মাস বন্ধ ছিল মৌসুম। মে মাসে মৌসুম শেষ হওয়ার কথা থাকলেও সেটি শেষ হয়েছে আগস্টে। এক্ষেত্রে চুক্তির ওই ধারাও জুনে শেষ না হয়ে সেপ্টেম্বরে শেষ হওয়ার কথা।

 

মেসির আইনজীবী বলছেন, মেসি নতুন মৌসুম শুরুর আগেই ক্লাব ছাড়ার সিদ্ধান্তের কথা জানিয়ে দিয়েছেন। এখন ওই ধারাটি কার্যকর হওয়ার কথা।

 

কিন্তু বার্সার তরফ থেকে বলা হচ্ছে, ওই ধারা এখন কার্যকর নয়।

এক্ষেত্রে বিষয়টি গড়াতে পারে আদালতে।

শেয়ার করুন :