মুশফিক-শফিউলরা মাঠে, জানালেন স্বস্তির কথা মুশফিক-শফিউলরা মাঠে, জানালেন স্বস্তির কথা – SportsTour24

স্পোর্টসট্যুর প্রতিবেদক :: ঢাকা প্রিমিয়ার লিগের এক রাউন্ড খেলা হয় ১৫ ও ১৬ মার্চ। এরপর মহামারি করোনার কারণে স্থগিত হয়ে যায় লিগ। সেই লিগ ফের কবে শুরু হবে, ঠিক নেই। কিন্তু দীর্ঘদিন ঘরবন্দী থাকা ক্রিকেটাররা নিজেদের ফিটনেস ঠিক রাখতে আর মানসিক ধকল কাটাতে উদগ্রিব। সে প্রেক্ষিতেই আজ রোববার থেকে মাঠে অনুশীলন শুরু করেছেন মুশফিকুর রহিম, শফিউল ইসলাম, মোহাম্মদ মিঠুনরা।

 

এ তিনজন অনুশীলন করেছেন ঢাকার মিরপুরে শের-ই-বাংলা জাতীয় স্টেডিয়ামে। সিলেট আন্তর্জাতিক ক্রিকেট স্টেডিয়ামে অনুশীলন করেন পেসার সৈয়দ খালেদ আহমেদ ও নাসুম আহমেদ। খুলনায় উইকেটকিপার-ব্যাটসম্যান নুরু‌ল হাসান সোহান ছাড়াও অনুশীলন করেছেন দুই অফস্পিনিং অলরাউন্ডার মেহেদি হাসান ও মেহেদী হাসান মিরাজ।

 

চট্টগ্রামে অনুশীলনের কথা ছিল অফস্পিনার নাঈম হাসানের। তবে বৃষ্টির কারণে তিনি মাঠে যেতে পারেন নি। কাল সোমবার মিরপুরে মাঠের অনুশীলনে নামবেন ইমরুল কায়েস।

 

বাংলাদেশ ক্রিকেট বোর্ডের (বিসিবি) তরফে জানানো হয়েছে, ক্রিকেটাররা বিসিবির তত্ত্বাবধানে এখন ব্যক্তিগত পর্যায়ে অনুশীলন করছেন। ১০ ক্রিকেটার ২৬ জুলাই অবধি অনুশীলন চালাবেন। ঈদের পর দ্বিতীয় দফায় আরো কিছু ক্রিকেটারকে মাঠের অনুশীলনে দেখা যেতে পারে।

 

মুশফিকুর রহিমরা আজ ট্রেনারের তত্ত্বাবধানে রানিং অনুশীলন করেছেন। ইনডোরে নেটে বোলিং মেশিনের সাহায্যে করেছেন ব্যাটিং অনুশীলন।

 

প্রথম দিনের অনুশীলন শেষে শফিউল ইসলামের কণ্ঠে ছিল স্বস্তির আবহত, ‘(অনুশীলন) শুরু করলাম, শুরুর দিকে কিছু সমস্যা তো থাকবেই। শুরুর দিকে মানিয়ে নিতে কিছুটা ঝামেলা হয়তো হবে, বিশেষ করে ফিটনেস নিয়ে। তবে বোলিং নিয়ে হয়তো অতোটা সমস্যা হবে না। শুরুর দিকে ছন্দ পেতে একটু সমস্যা হতে পারে, কিন্তু সেটা ঠিক হয়ে যাবে।’

 

সৈয়দ খালেদ আহমেদ চোটের কারণে দীর্ঘ ১১ মাসের মতো ছিলেন বাইরে। প্রিমিয়ার লিগ ফিরলেও করোনার কারণে চলে আসে অপ্রত্যাশিত বিরতি। সিলেটে অনুশীলন করা এই পেসার এখন ছন্দ ফিরে পেতে চান।

 

‘প্রথম দিন মাঠে গিয়ে খুব ভালো লাগছে। আমাদের স্টেডিয়াম এমনিতেই সুন্দর, এখন নতুন ঘাস উঠেছে, চারপাশ সবুজের মেলা। সব মিলিয়ে প্রথম দিন ভালো কেটেছে। তবে বোলিং করার অনুমতি এখনও দেয়া হয় নি। আগে ফিটনেস, এরপর বোলিং। বোলিংয়ের যখন অনুমতি মিলবে তখন কীভাবে করবো, এটা নিয়ে ভাবছি। কারণ, অনেক সময় এর মাঝে চলে গেছে। ছন্দের একটা ব্যাপার তো থাকেই।’

 

খুলনা থেকে নুরুল হাসান সোহান বলছিলেন, ‘আগে মনে হতো, কবে পরিস্থিতি স্বাভাবিক হবে। আজ অনুশীলন শুরুর পর মনে হচ্ছে, শুরু যখন হয়েছে আস্তে আস্তে সব ঠিক হবে। অনেক দিন পর মাঠে এসে অন্যরকম এক ভালো লাগা কাজ করছে। এখন মনে হচ্ছে এক সময়ে মাঠে ক্রিকেট ফিরবে, এটা স্বস্তির জায়গা।’

শেয়ার করুন :