ভারোত্তোলন দিয়ে খুলছে ‘ক্রীড়াঙ্গনের লকডাউন’ ভারোত্তোলন দিয়ে খুলছে ‘ক্রীড়াঙ্গনের লকডাউন’ – SportsTour24

স্পোর্টসট্যুর প্রতিবেদক :: বাংলাদেশের ক্রীড়াঙ্গন এখন কার্যত লকডাউনের মধ্যেই আছে। গেল মার্চের মধ্যভাগ থেকে এখন অবধি মাঠে নেই ক্রিকেট, ফুটবল, হকি কিংবা অন্য কোনো খেলা।

 

তবে করোনার কারণে অন্য খেলাগুলোর অনুশীলন পর্যন্ত বন্ধ থাকলেও ভারোত্তলন হেঁটেছে উল্টো পথে। দেশে গেল ৩০ মে সাধারণ ছুটি শেষ হয়। এর পরই দেশের ১৩ জেলার ১৬টি ক্লাবের ভারোত্তলকরা অনুশীলন শুরু করে দেন।

 

এখন বাংলাদেশ ভারোত্তোলন ফেডারেশন ক্লাব কাপ টুর্নামেন্ট আয়োজনের চিন্তা নিয়ে এগোচ্ছে। সেপ্টেম্বরের শুরুতে এই প্রতিযোগিতা করার চিন্তাভাবনা আছে ফেডারেশনে। যদি সেটা হয়, তবে ভারোত্তোলন দিয়েই দেশের ‘ক্রীড়াঙ্গনের লকডাউন’ খুলবে।

 

ফেডারেশনের তথ্য বলছে, দেশে বর্তমানে ঢাকা, রাজশাহী, খুলনা, ময়মনসিংহ, গাজীপুর, কিশোরগঞ্জ, বাগেরহাট, কুষ্টিয়া, দিনাজপুর, নওগাঁ, নড়াইল, মেহেরপুর ও পিরোজপুরের ১৬টি ক্লাবের ভারোত্তোলক অনুশীলন করছেন। ৫৩ জন নারীসহ ১৯৮ জন অ্যাথলেট ঘাম ঝরাচ্ছেন অনুশীলনে।

 

এছাড়া পাঁচটি সার্ভিসেস দলের ভারোত্তোলকরাও করছেন অনুশীলন।

 

ভারোত্তোলনে দীর্ঘদিন অনুশীলনের বাইরে থাকার অর্থ অনেক বেশি ক্ষতি। বসে থাকলে অ্যাথলেটের ফিটনেস নষ্ট হয়ে যায়। এ প্রেক্ষাপটেই ভারোত্তোলকরা বসে না থেকে অনুশীলন শুরু করেন। ভারোত্তোলন ফেডারেশন থেকে দেশের বিভিন্ন ক্লাবকে অনুশীলনের জন্য সরঞ্জামাদিও প্রদান করা হয়।

 

এখন ফেডারেশন আগামী সেপ্টেম্বরের প্রথম সপ্তাহে ক্লাব কাপ ভারোত্তোলন প্রতিযোগিতা আয়োজন করতে চাইছে। করোনার কারণে সবাইকে একসাথে করে যেহেতু প্রতিযোগিতা আয়োজন সম্ভব নয়, এজন্য প্রযুক্তির সহায়তা নিতে চাচ্ছে ফেডারেশন।

 

ভারোত্তোলকরা নিজ নিজ অবস্থানে থেকে ভার তুলবেন। তাঁদের ভার তোলা বিচারকরা দেখবেন সরাসরি কিংবা রেকর্ডেড ভিডিওয়ের মাধ্যমে। সেটা দেখে প্রথম, দ্বিতীয়, তৃতীয় নির্বাচিত করবেন তাঁরা।

 

বাংলাদেশ ভারোত্তোলন ফেডারেশনের সহসভাপতি মহিউদ্দিন আহমেদ বলছিলেন, ‘সেপ্টেম্বরের প্রথম সপ্তাহে ক্লাব কাপ ভারোত্তোলন প্রতিযোগিতা আয়োজন করার পরিকল্পনা আমাদের আছে। ইতিমধ্যে আমরা বিভিন্ন ক্লাবকে অনুশীলনের জন্য সরঞ্জামাদি প্রদান করেছি।’

 

‘আমাদের ফেডারেশনের জিমনেশিয়ামও খোলা রয়েছে। জাতীয় খেলোয়াড়দের কেউ চাইলে এখানে এসে অনুশীলন করতে পারবেন।’

শেয়ার করুন :