ভারতকে এক মাসের আলটিমেটাম দিল পাকিস্তান ভারতকে এক মাসের আলটিমেটাম দিল পাকিস্তান – SportsTour24

স্পোর্টসট্যুর ডেস্ক :: ভারতে অনুষ্ঠেয় টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপ কাছাকাছি চলে আসছে ক্রমেই। পাল্লা দিয়ে বাড়ছে পাকিস্তানের সঙ্গে চাপানউতোরও। বিশ্বকাপের ঠিক আগ মুহূর্তে ভিসা সংক্রান্ত জটিলতায় পড়তে চায় না পাকিস্তান। সেজন্যই খেলোয়াড়, অফিসিয়াল থেকে শুরু করে সমর্থক পর্যন্ত সবার ভিসার ব্যাপারে লিখিত আশ্বাস চাইছে আগামী মার্চের মধ্যেই। অন্যথায় টি-২০ বিশ্বকাপ সরিয়ে নেওয়ার ব্যাপারে তদবিরের হুঁশিয়ারি দিয়েছেন পাকিস্তান ক্রিকেট বোর্ডের সভাপতি এহসান মানি।

 

আগামী ১৮ অক্টোবর থেকে শুরু হয়ে টি-টোয়েন্টির বিশ্ব আসর চলবে ১৫ নভেম্বর পর্যন্ত। বিশ্বকাপের আট মাস সময়ও বাকি নেই আর। এ সময়ে ভারত-পাকিস্তান সরকারের দ্বিপাক্ষিক সম্পর্ক উদ্বেগে রেখেছে পাকিস্তান বোর্ডকে। শেষ কয়েক বছরে সন্ত্রাসবাদ, সীমান্ত-সমস্যাসহ আরও অনেক কারণে দিল্লির সঙ্গে ইসলামাবাদের সম্পর্কে অবনতি হয়েছে বেশ। এরই জেরে অনেকদিন ধরেই দ্বিপাক্ষিক সিরিজের দেখা নেই ভারত-পাকিস্তানের।

 

দ্বিপাক্ষিক সিরিজে এর প্রভাব পড়লেও আন্তর্জাতিক টুর্নামেন্টে এর ছাপ পড়তে দিতে চায় না পাকিস্তান বোর্ড। এজন্যে পাকিস্তানের ক্রিকেট দলসহ পুরো বহরের ভিসার ব্যাপারে লিখিত আশ্বাসই চেয়ে বসেছেন বোর্ড সভাপতি এহসান মানি। এর কারণ হচ্ছে, ভিসার ব্যাপারে ভারতীয় ক্রিকেট বোর্ড (বিসিসিআই) এর করার আছে সামান্যই, প্রায় পুরো ব্যাপারটা নির্ভর করছে ভারতীয় সরকারের সিদ্ধান্তের ওপর। তবে ক্রিকেট বোর্ডের অনুরোধ বিশেষ বিবেচনার দুয়ার খুলে দিতে পারে এক্ষেত্রে।

 

লাহোরে এক সংবাদ সম্মেলনে মানি বলেন, ‘ক্রিকেটে তিন মোড়লের মানসিকতা বদলাতে হবে আমাদের। আমরা কেবল জাতীয় দলের ক্রিকেটারদের জন্যই নয়, অফিসিয়াল, সাংবাদিক ও সমর্থকদের ভিসার ব্যাপারেও লিখিত আশ্বাস চাইছি মার্চের মধ্যেই। আইসিসিকেও জানিয়ে রেখেছি, আগামী এক মাসের মধ্যেই এটা দিতে হবে আমাদের। এ সময়ের মধ্যে যদি ভিসার লিখিত আশ্বাস না পাই আমরা, তাহলে ভেন্যু বদলে ভারতের বদলে সংযুক্ত আরব আমিরাতে বিশ্বকাপ আয়োজনের ব্যাপারে কাজ করব আমরা।’

 

পাকিস্তান ক্রিকেট বোর্ড সভাপতির এমন হুঁশিয়ারির পর অবশ্য এখনও পর্যন্ত কোনো প্রত্যুত্তর আসেনি ভারতীয় ক্রিকেট বোর্ডের পক্ষ থেকে। এ নিয়ে আইসিসিও এখনো মুখ খোলেনি। তবে ভারতীয় সংবাদ মাধ্যমে গুঞ্জন, জটিলতার খুব একটা সম্ভাবনা নেই এ নিয়ে। বিশ্বকাপ আয়োজনের জন্য পাকিস্তান বহরের ভিসা মঞ্জুর নিয়ে তাই কোনো সমস্যাও হবে না।

শেয়ার করুন :