বার্সেলোনার ‘গোড়ায় আঘাত লেগেছে’ বার্সেলোনার ‘গোড়ায় আঘাত লেগেছে’ – SportsTour24

স্পোর্টসট্যুর ডেস্ক :: বার্সেলোনার কী হয়েছে, কে জানে! সাম্প্রতিক সময়ে একের পর এক ব্যর্থতার চোরবালিতে ডুবে যাচ্ছে স্প্যানিশ জায়ান্টরা। লা লিগায় ব্যর্থতা ঝেড়ে ফেলে চ্যাম্পিয়ন্স লিগে ঘুরে দাঁড়ানোর ঘোষণা দিয়েছিল বার্সা। নাপোলির বিপক্ষে শেষ ষোলোর ম্যাচে কিছুটা আভাসও মিলেছিল।

 

কিন্তু তা ছিল ক্ষণিকের ঝলক। পরের ম্যাচেই, কোয়ার্টার ফাইনালের লড়াইয়ে বায়ার্নের বিপক্ষে রীতিমতো তাসের ঘরের মতো উড়ে গেছে মেসির বার্সা।

 

কাল রাতে পর্তগালের লিসবনে চ্যাম্পিয়ন্স লিগের কোয়ার্টার ফাইনালে জার্মান চ্যাম্পিয়ন বায়ার্ন মিউনিখের কাছে ৮-২ গোলে বিধ্বস্ত হয়েছে বার্সেলোনা। দুই অর্ধে চারটি করে গোল হজম করে বিব্রতকর হারে শূন্য হাতে মৌসুম শেষ করলো বার্সেলোনা।

 

বায়ার্নের গতিময় ফুটবল আর আক্রমাণত্মক কৌশলের কোনো জবাবই যেন ছিল না বার্সার কাছে। ভঙ্গুর রক্ষণ নিয়ে ম্যাচ জুড়ে তাই ভুগেছে কিকে সেতিয়েনের দল। সাথে ছন্নছাড়া মাঝমাঠ, লিওনেল মেসির বিবর্ণ রূপে আক্রমণভাগ ছিল নিষ্প্রভ।

 

৭৪ বছর পর এমন লজ্জা পেল বার্সেলোনা!

১৪ বছর পর নেই মেসি-রোনালদো!

 

৭৪ বছর পর তাই ৮ গোল খেয়ে লজ্জার মুখে পড়েছে বার্সেলোনা। ম্যাচ শেষে জেরার্ড পিকে সংবাদমাধ্যমের সাথে কথা বলেছেন। সেখানে তাঁর কণ্ঠে ঝরে পড়লো শুধুই হতাশা।

 

পিকে বলেন, ‘আমি বেদনাহত। আমরা সবাই কষ্ট পাচ্ছি। আমরা এভাবে খেলতে পারি না। এটা মেনে নেওয়া খুবই কঠিন। এর বেশি কিছু বলার নেই।’

 

‘এটা কী একটা যুগের অবসান? আমি নিশ্চিত নই! তবে আমাদের মেনে নিতে হবে, আমাদের একেবারে গোড়ায় আঘাত লেগেছে। শুধু খেলোয়াড়দের ব্যাপার নয়, ক্লাব হিসেবেও আমরা সঠিক পথে নেই। অনেকগুলো সাফল্যেভরা বছর পার করে এসেছি। তবে এবার আমরা লিগ জিতিনি, ইউরোপে জিতলাম না। তবে আমাদের চ্যালেঞ্জ নিতে হবে…..আজ মাঠে যা হলো তা মেনে নেওয়া যায় না।’

 

স্প্যানিশ ডিফেন্ডার কোনো রাখঢাক করেন নি, স্পষ্ট বলে দিয়েছেন, দলে অনেক পরিবর্তন দরকার। শুধু খেলোয়াড়ের ক্ষেত্রেই যে এ পরিবর্তন নয়, তাও স্পষ্ট করেছেন পিকে।

 

‘ক্লাবে পরিবর্তন দরকার। শুধু খেলোয়াড়ই নয়, আমি নির্দিষ্ট করে বলতে চাই না। ফুটবল এমন একটা খেলা যেখানে পরিবর্তন নিয়মিত প্রয়োজন..…ঘুরে দাঁড়াতে কী প্রয়োজন, তার খোঁজ করতে হবে আমাদের, যেসব মানুষ এই ক্লাবের জন্য সঠিক কাজটা করবে, তাদের ওপর আস্থা রাখতে হবে আমাদের।’

 

জেরার্ড পিকে বলেন, ‘আমি যদি তালিকা ধরে পরিবর্তনের কথা বলতে চাই, তাহলে সর্বপ্রথম আমি নিজেকে নিয়েই সেটা মেনে নেব। আজকের ম্যাচের ফল ভয়াবহ, শঙ্কা জাগানিয়া। হতাশাজনক। সব পর্যায়েই আমাদের কাঠামোগত পরিবর্তন দরকার।’

 

পিকে যে পরিবর্তনের কথা বলছেন, তা হয়তো শিগগিরই দেখা যাবে বার্সায়। ক্লাবটির দায়িত্বশীলদের কথায়ও কিন্তু সেই ইঙ্গিত।

শেয়ার করুন :