বাংলাদেশের ফুটবলারদের সামনে করোনা পরীক্ষা বাংলাদেশের ফুটবলারদের সামনে করোনা পরীক্ষা – SportsTour24

স্পোর্টসট্যুর প্রতিবেদক :: বাংলাদেশ জাতীয় ফুটবল দল এখন অখণ্ড অবসরে। করোনার কারণে দেশের ঘরোয়া মৌসুম বাতিল হয়ে গেছে। নেই আন্তর্জাতিক ফুটবলের কোনো চাপও।

 

তবে সামনে আছে কঠিন মিশন। কাতার বিশ্বকাপ এবং এশিয়ান কাপের বাছাইপর্বের ৪টি ম্যাচ বাকি বাংলাদেশের। আগামী অক্টোবর-নভেম্বরে হবে ম্যাচগুলো। ওই ম্যাচগুলোর আগে আগস্টে ক্যাম্প ডাকবে বাফুফে। ক্যাম্পে ডাক পাওয়া খেলোয়াড়দের যেতে হবে করোনা শনাক্তকরণ পরীক্ষার মধ্য দিয়ে। এছাড়া তাদেরকে রাখা হবে ১৪ দিনের আইসোলেশনে।

 

আজ বুধবার এমনটাই জানিয়েছেন জাতীয় দল ব্যবস্থাপনা কমিটির চেয়ারম্যান কাজী নাবিল আহমেদ।

 

এ কমিটির সভা হয়। সেখানেই জাতীয় দল নিয়ে এমন সিদ্ধান্ত আসে।

 

আরো পড়ুন:

 

টানা তৃতীয় মেয়াদে বাংলাদেশের কোচ হিসেবে নিয়োগ পেয়েছেন জেমি ডে। ৪০ বছর বয়সী জেমিকে এবার ২ বছরের জন্য পাচ্ছেন জামাল ভুঁইয়ারা। নতুন চুক্তির পর জেমির সামনে প্রথম মিশনই হচ্ছে কাতার বিশ্বকাপ এবং এশিয়ান কাপের চলমান বাছাইপর্ব।

 

জেমির অধীনেই চলমান বাছাইপর্বে ৪টি ম্যাচ খেলেছে বাংলাদেশ। কলকাতায় ভারতের সঙ্গে এক ড্রতে বাংলাদেশের অর্জন মাত্র এক পয়েন্ট। বাকি তিন ম্যাচেই হার।

 

বাছাইপর্বের দ্বিতীয় রাউন্ডের বাকি চারটি ম্যাচের সূচি জানিয়ে দিয়েছে এশিয়ান ফুটবল ফেডারেশন (এএফসি)। সূচি অনুসারে, ১৩ অক্টোবর কাতারের বিপক্ষে বিপলুদের ম্যাচটি অনুষ্ঠিত হবে দোহায়। এছাড়া বাকি তিনটি ম্যাচ আফগানিস্তান (৮ অক্টোবর), ভারত (১২ নভেম্বর) ও ওমানের (১৭ নভেম্বর) বিপক্ষে দেশের মাটিতেই খেলবে বাংলাদেশ। ভেন্যু এখনো নির্দিষ্ট হয়নি। তবে ঢাকাতেই হওয়ার সম্ভাবনা বেশি।

 

বাছাইপর্বের ম্যাচগুলো সামনে রেখে আজ সভায় বসেছিল জাতীয় দল ব্যবস্থাপনা কমিটি। সেখানে সিদ্ধান্ত হয়েছে, করোনা পরিস্থিতিতে সহসাই মাঠে নামছে না বাংলাদেশ। আগস্টে শুরু হবে ক্যাম্প, ৪৪ ফুটবলারকে নিয়ে। মূলত স্বাস্থঝূঁকির কথা বিবেচনা করেই ক্যাম্পে বেশি সংখ্যক খেলোয়াড়কে ডাকা হবে।

 

এ প্রসঙ্গে জাতীয় দল ব্যবস্থাপনা কমিটির চেয়ারম্যান কাজী নাবিল আহমেদ বলেন, ‘আগস্টের শুরুতে প্রাথমিকভাবে ৪৪ জন খেলোয়াড়কে ক্যাম্পে ডাকতে চাই আমরা। ঢাকা বা ঢাকার বাইরে সুবিধাজনক পরিবেশে ক্যাম্পের জায়গা খোঁজা হচ্ছে। ক্যাম্পের শুরুতেই প্রত্যেক খেলোয়াড়কে করোনা শনাক্তের পরীক্ষা করানো হবে। যারা সুস্থ থাকবেন, তাদেরকে দুই সপ্তাহ আইসোলেশনে রাখা হবে। এর পর শুরু হবে দলীয় অনুশীলন।’

 

জেমি ডে দেশের বাইরে ক্যাম্প করতে চাইছেন। তবে করোনার কারণে তা সম্ভব হচ্ছে না। সুযোগ এলে এ বিষয়ে ভেবে দেখা হবে বলে জানিয়েছে বাফুফে।

 

স্পোর্টসট্যুর২৪ডটকম/আরআই-কে

শেয়ার করুন :