‘ফার্গি টাইমে’ ম্যান ইউর হোঁচট ‘ফার্গি টাইমে’ ম্যান ইউর হোঁচট – SportsTour24

স্পোর্টসট্যুর ডেস্ক :: ‘ফার্গি টাইম’ ওল্ড ট্রাফোর্ডে দেখা গেল আবারও। ম্যানচেস্টার ইউনাইটেডের সমর্থকরা ম্যাচের ৯০ মিনিটের পর যোগ করা সময়কে গর্ব নিয়ে ‘ফার্গি টাইম’ ডাকতেন একসময়। যোগ করা সময়ে ওয়েইন রুনি, ডেভিড বেকহাম, রায়ান গিগস, রবিন ফন পার্সিরা অসংখ্যবার গোল করে দলকে বিপদমুক্ত করেছেন। ইউনাইটেডের বর্তমান ম্যানেজার ওলে গুনার সুলশারও শেষমুহুর্তে গোল করাকে অভ্যাসে পরিণত করেছিলেন।

 

কাল রাতে ওল্ড ট্রাফোর্ডে যে ‘ফার্গি টাইম’ দেখা গেল, তাতে ম্যান ইউর কেউ নায়কের ভূমিকায় নয়। বরঞ্চ আনকোরা ফরোয়ার্ড মাইকেল ওবাফেমিই দৃশ্যপটে চলে এলেন। যোগ করা সময়ে তাঁর গোলের সুবাদেই সাউদাম্পটন ২-২ গোলে ড্র করেছে ম্যান ইউর সাথে।

 

এই ড্রয়ে আগামী মৌসুমে চ্যাম্পিয়ন্স লিগ খেলার দৌড়ে চেলসি বা লেস্টার সিটি থেকে খানিকটা পিছিয়ে পড়লো ম্যানচেস্টার ইউনাইটেড।

 

ইংলিশ প্রিমিয়ার লিগে (ইপিএল) ৩৫ ম্যাচে ৫৯ পয়েন্ট নিয়ে পাঁচেই থেকে গেল ওলে গুনার সুলশারের দল। গোল পার্থক্যে তাঁদের চেয়ে এগিয়ে থাকা লেস্টার সিটি চারে।

 

আগেই শিরোপা নিশ্চিত করা লিভারপুলের পয়েন্ট ৯৩। ৭২ পয়েন্ট নিয়ে দুইয়ে ম্যানচেস্টার সিটি। তিনে আছে চেলসি, পয়েন্ট ৬০।

 

গত রাতে ম্যানচেস্টার ইউনাইটেডকে শুরু থেকেই চেপে ধরে সাউদাম্পটন। দ্বাদশ মিনিটে গোলও পেয়ে যায় তাঁরা।

 

পল পগবা বলের নিয়ন্ত্রণ হারালে পেয়ে যান সাউদাম্পটনের ন্যাথান রেডমন্ড। তাঁর ক্রস থেকে বল নিয়ন্ত্রণে নিয়ে গোল করেন স্টুয়ার্ট আর্মস্ট্রং।

 

এরপরই গা ঝাড়া দিয়ে ওঠে ম্যান ইউ। আক্রমণে ব্যতিব্যস্ত করে রাখে সাউদাম্পটনের রক্ষণকে। ষোড়শ মিনিটে বল জালে পাঠান মার্কাস র‌্যাশফোর্ড। তবে অফসাইডের কারণে পান নি গোল।

 

তবে মিনিট চারেক পরে ফের জাল কাঁপিয়ে উল্লাসে মাতেন ওই র‌্যাশফোর্ড। পগবার কাছ থেকে ডি-বক্সে বল পান অ্যান্থনি মার্শিয়াল। তিনি তিন ডিফেন্ডারকে কাটিয়ে পাস বাড়ান র‌্যাশফোর্ডকে। বাকি কাজ অনায়াসে করেন তিনি।

 

আগের গোলে অবদান রাখা ফরাসি ফরোয়ার্ড মার্শিয়াল ২৩তম মিনিটে নিজেই গোল করেন। ব্রুনো ফার্নান্দেজের কাছ থেকে বল পেয়ে জোরালো শটে গোল করেন তিনি। সাউদাম্পটনের আট খেলোয়াড় ডি-বক্সে থেকেও প্রতিহত করতে পারেন নি ফরাসি ফরোয়ার্ডকে।

 

২-১ গোলে পিছিয়ে থাকা সাউদাম্পটন গোল শোধের জন্য মরিয়া হয়ে ওঠে। ম্যাচ গড়ায় যোগ করা সময়ে। আর ওই সময়েই সর্বনাশ হয় ম্যান ইউর।

 

কর্নার থেকে উড়ে আসা বলে ফ্লিক করে গোল করে বসেন তরুণ ফরোয়ার্ড ওবাফেমি। ম্যাচ ড্র ২-২ গোলে।

 

শিরোপার আরো কাছে রিয়াল মাদ্রিদ

 

এই ম্যাচ জিতলে লিগে তিন নম্বরে চলে আসতো ম্যান ইউ। সে সুযোগ হাতছাড়া হলো তাঁদের। তবে টানা ১৭ ম্যাচ ধরে অপরাজিত থাকার রেকর্ড অক্ষুন্ন রেখেছে ‘রেড ডেভিল’রা।

 

গত রাতের এই ম্যাচ দিয়ে ম্যান ইউর হয়ে সব প্রতিযোগিতা মিলিয়ে নিজের চারশতম ম্যাচ খেলেছেন গোলরক্ষক ডেভিড দে হেয়া।

শেয়ার করুন :