ফরাসি ওপেনে ফিক্সিংয়ের ছায়া, তোলপাড় ফরাসি ওপেনে ফিক্সিংয়ের ছায়া, তোলপাড় – SportsTour24

স্পোর্টসট্যুর ডেস্ক :: মহামারি করোনাভাইরাসের কারণে সব ধরনের খেলাধুলা বন্ধ ছিল। ফলে নিষ্ক্রিয় ছিল জুয়াড়িরাও। কিন্তু গেল কয়েক মাস ধরে খেলাধুলা শুরু হওয়ার পর থেকে জুয়াড়িরা ফের সক্রিয়। কয়েকদিন আগে ইন্ডিয়ান প্রিমিয়ার লিগে (আইপিএল) এক ক্রিকেটারকে ম্যাচ ফিক্সিংয়ের প্রস্তাব দেওয়া হয় বলে জানা গেছে। এ নিয়ে তদন্ত চলমান।

 

এরই মধ্যে জানা যাচ্ছে, ফরাসি ওপেন টেনিস টুর্নামেন্টেও ফিক্সিংয়ের কালো ছায়া পড়েছে। মেয়েদের একটি ডাবল ম্যাচকে ঘিরে ফিক্সিংয়ের অভিযোগ ওঠেছে। এ নিয়ে এখন টেনিস দুনিয়ায় তোলপাড় চলছে।

 

ফরাসি ওপেন টেনিস ফেডারেশনের পক্ষ থেকে বলা হয়েছে, তাঁরা অভিযোগের তদন্ত শুরু করেছেন।

 

গেল ৩০ সেপ্টেম্বর ফরাসি ওপেনে মেয়েদের ডাবলে মুখোমুখি হন রোমানিয়ান জুটি আন্দ্রে মিতু ও প্যাট্রিসিয়া মারি এবং রাশিয়ান ইয়ান সিজিকোভা ও আমেরিকান ম্যাডিসন ব্রেঙ্গেল।

 

ফরাসি ও জার্মান সংবাদমাধ্যম বলছে, ম্যাচের দ্বিতীয় সেটের পঞ্চম গেম নিয়ে গড়াপেটার অভিযোগ ওঠেছে। ওই গেম ৪০-০ ব্যবধানে জেতেন রোমানিয়ান জুটি। ওই গেমে সিজিকোভা দুটি ডাবল ফল্টও করেন সার্ভিস করতে গিয়ে।

 

ফরাসি সংবাদমাধ্যমের দাবি, ওই ম্যাচে রোমানিয়ার জুটির জেতার উপরে প্রচুর টাকা বাজি ধরা হয়েছিল। স্ট্রেইট সেটে ম্যাচ জেতেন তাঁরা। প্যারিসের একটি সংস্থার মাধ্যমে বিভিন্ন দেশে অর্থও তোলা হয়েছিল এই উদ্দেশ্যে।

 

অভিযোগ ওঠার পর ম্যাচের ভিডিও ফুটেজ সংগ্রহ করে তদন্ত শুরু হয়েছে।

 

টেনিসে দুর্নীতির বিষয়গুলো তদন্ত করে দ্য টেনিস ইন্টেগ্রিটি ইউনিট (টিআইইউ)। ২০০৮ সালে এটি প্রতিষ্ঠিত হয়। আজীবন নিষেধাজ্ঞা দেওয়ার মতো ক্ষমতাও এই সংস্থা রাখে।

 

টিআইইউ জানিয়েছে, চলতি বছর ফিক্সিং চেষ্টার প্রবণতা বেড়েছে। গেল বছর জানুয়ারি থেকে মার্চের মধ্যে তাঁরা ২১টি ম্যাচ নিয়ে জুয়ার সতর্কবার্তা পেয়েছিলেন। কিন্তু এ বছর একই সময়ে ৩৮টি ম্যাচ নিয়ে সতর্কবার্তা পাওয়া যায়।

শেয়ার করুন :