পাকিস্তানের ঐতিহাসিক সফরের অলরাউন্ডার আর নেই পাকিস্তানের ঐতিহাসিক সফরের অলরাউন্ডার আর নেই – SportsTour24

স্পোর্টসট্যুর ডেস্ক :: নাম তাঁর খালিদ ওয়াজির। বর্তমান প্রজন্মের বেশিরভাগ ক্রিকেটপ্রেমীই হয়তো এই নাম শুনেন নি। না শোনারই কথা। সেই কবে পঞ্চাশের দশকে খেলা ক্রিকেটারের নাম এখনকার কেউ শুনবেই বা কী করে!

 

পাকিস্তানের ঐতিহাসিক এক সফরের দলের এই অলরাউন্ডার আর নেই। যুক্তরাজ্যের চেস্টারে মারা গেছেন খালিদ ওয়াজির। মৃত্যুকালে তাঁর বয়স হয়েচিল ৮৪ বছর।

 

১৯৫৪ সালে পাকিস্তান ইংল্যান্ড সফরে যায়। ওই সফরে চারটি টেস্ট খেলে উভয় দল। সিরিজ ড্র হয় ১-১ সমতায়। ওই সিরিজের মধ্য দিয়েই পাকিস্তান ক্রিকেট দুনিয়ায় নিজেদের বড় শক্তি হয়ে ওঠার জানান দিয়েছিল। যে কারণে ওই সফরকে ঐতিহাসিক বলে বিবেচনা করা হয়।

 

ওই সফরের দলে ছিলেন অলরাউন্ডার খালিদ ওয়াজির। লম্বা গড়নের খালিদ ছিলেন মিডিয়াম পেসার কাম মিডল অর্ডার ব্যাটসম্যান। হার্ডহিটার ছিলেন তিনি।

 

পাকিস্তানের ১৬তম এই টেস্ট ক্রিকেটার লর্ডসে অভিষিক্ত হন। ওই সময় তিনি ছিলেন পাকিস্তানের দ্বিতীয় কনিষ্ঠ ক্রিকেটার। তাঁর চেয়ে কম বয়সে কেবলমাত্র বিখ্যাত হানিফ মোহাম্মদের অভিষেক হয়েছিল।

 

১৯৫৪ সালের ওই সফরে প্রথম ও তৃতীয় টেস্ট তথা দুটি টেস্ট খেলেই আন্তর্জাতিক ক্যারিয়ার থেমে যায় খালিদ ওয়াজিরের। ওই সময় দলে স্থান পাওয়াটাও ছিল তাঁর জন্য চমকের। কেননা তখন অবধি মাত্র দুটি প্রথম শ্রেণির ম্যাচ খেলেছিলেন খালিদ।

 

আন্তর্জাতিক ক্রিকেটে ভালো কিছু করতে পারেন নি খালিদ। ওই দুই টেস্টের তিন ইনিংসে করেছিলেন মাত্র ১৪ রান। বোলিংয়ের সুযোগ পান নি।

 

পরবর্তীতে ১৯৬২ সালে কয়েকজন পেসারের চোটে দলে ডাক পেয়েছিলেন। কিন্তু খেলার সুযোগ হয়নি।

 

এরপর থেকে ইংল্যান্ডে স্থায়ী হয়ে যান খালিদ ওয়াজির। তিনি নর্থ স্টাফোর্ডশায়ার এবং ডিস্ট্রিক্ট লিগে সফল ক্লাব ক্রিকেটার হিসেবে খেলেছেন দীর্ঘদিন।

 

খালিদ ওয়াজির আরেকটি কারণে স্মরণীয়। তিনি পাকিস্তানের হয়ে টেস্ট খেলেছেন। কিন্তু তাঁর বাবা ওয়াজির আলী ও ভাই নাজির আলী খেলেছেন ভারতের হয়ে! দেশ ভাগের আগে ১৯৩০ সালে তাঁরা ভারতের হয়ে খেলেন। দেশ ভাগের পর ওয়াজির পরিবার পাকিস্তানের করাচিতে এসে ঠাঁই নেয়।

 

দীর্ঘদিন ধরে অসুস্থ থাকার পর খালিদ ওয়াজির পাড়ি জমিয়েছেন না ফেরার দেশে।

শেয়ার করুন :