দেশে ক্রীড়াঙ্গন সরবে স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয়ে চোখ দেশে ক্রীড়াঙ্গন সরবে স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয়ে চোখ – SportsTour24

স্পোর্টসট্যুর প্রতিবেদক :: মহামারি করোনারে কারণে ৪ এপ্রিল দেশে সব ধরনের খেলাধুলা অনির্দিষ্টকালের জন্য বন্ধ রাখার সিদ্ধান্ত নিয়েছিল যুব ও ক্রীড়া মন্ত্রণালয়। বাংলাদেশে স্থবির হয়ে পড়া এই ক্রীড়াঙ্গন কবে সরব হবে? এই প্রশ্নের উত্তর আপাতত স্বাস্থ্য ও পরিবার কল্যাণ মন্ত্রণালয়ের সিদ্ধান্তের অপেক্ষায়।

 

যুব ও ক্রীড়া মন্ত্রণালয়ের পক্ষ থেকে বলা হচ্ছে, স্বাস্থ্যবিধি মেনে কিছু কিছু খেলা শুরু করার উদ্যোগ নেওয়া হচ্ছে। এ ব্যাপারে স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয়ের মতামত সাপেক্ষ সিদ্ধান্ত হবে।

 

আজ বৃহস্পতিবার যুব ও ক্রীড়া মন্ত্রণালয়ের সম্মেলন কক্ষে বেশ কয়েকটি ফেডারেশনের দায়িত্বশীলদের সঙ্গে এক জরুরি সভা অনুষ্ঠিত হয়। সভায় যুব ও ক্রীড়া প্রতিমন্ত্রী জাহিদ আহসান রাসেল এমপি উপস্থিত ছিলেন।

 

সভায় যুব ও ক্রীড়া সচিব আখতার হোসেন ছাড়াও সাঁতার, শুটিং, ভলিবল, ভারোত্তোলন, হ্যান্ডবল, কারাতে, আর্চারি, মহিলা ক্রীড়া সংস্থা ও তায়কোয়ানদো ফেডারেশনের সাধারণ সম্পাদকরা উপস্থিত ছিলেন।

 

মন্ত্রণালয়ের পক্ষ থেকে প্রতিমন্ত্রী জাহিদ আহসান রাসেলকে উদ্ধৃত করে এক সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে বলা হয়েছে, ‘স্বাস্থ্য অধিদপ্তর তথা স্বাস্থ্য ও পরিবার কল্যাণ মন্ত্রণালয়ের মতামত সাপেক্ষে দেশের খেলাধুলা ও প্রশিক্ষণ কার্যক্রম পুনরায় চালু করার বিষয়ে সিদ্ধান্ত নেওয়া হবে।’

 

প্রতিমন্ত্রী বলেন, ‘যে সকল ঘরোয়া খেলায় বডি কন্ট্যাক্ট (শারীরিক সংস্পর্শ) নেই, সে খেলাগুলো আমরা পুনরায় শুরু করতে চাই। তবে তা অবশ্যই স্বাস্থ্য ও পরিবার কল্যাণ মন্ত্রণালয়ের মতামত সাপেক্ষে। আমরা খেলোয়াড়দের স্বাস্থ্য সুরক্ষার বিষয়টিতে সর্বোচ্চ গুরুত্ব দিচ্ছি। আমরা আগামী সপ্তাহে স্বাস্থ্য ও পরিবার কল্যাণ মন্ত্রণালয়ের সাথে কথা বলব। তাদের মতামত সাপেক্ষে পরবর্তী সিদ্ধান্ত গ্রহণ করা হবে।’

 

প্রতি মাসে ভাতা পাবেন ১১৫০ ক্রীড়াবিদ

ক্রিকেট ফেরাতে মাঠের প্রস্তুতিতে বিসিবির মনোযোগ

 

এদিকে, আগামী বছর অলিম্পিক গেমস রয়েছে। সেজন্য স্বাস্থ্যবিধি মেনে আর্চারি ও শুটিংয়ের প্রশিক্ষণ কার্যক্রম কীভাবে শুরু করা সম্ভব, সে নিয়ে মন্ত্রণালয়ের ভাবনা রয়েছে।

 

যেহেতু খেলাধুলার আয়োজক ফেডারেশনগুলো, সেজন্য তারা কীভাবে স্বাস্থ্যবিধি মেনে খেলাধুলা ও প্রশিক্ষণের কাজ চালাবেন, সেটা লিখিত আকারে জমা দিতে বলা হয়েছে।

 

তবে ক্রীড়াঙ্গন সরব হবে কিনা, এ বিষয়টি আপাতত স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয়ের সিদ্ধান্তের ওপরই নির্ভর করছে।

শেয়ার করুন :