চলে গেলেন ভারতীয় ক্রিকেটের কিংবদন্তি চলে গেলেন ভারতীয় ক্রিকেটের কিংবদন্তি – SportsTour24

স্পোর্টসট্যুর ডেস্ক :: রাজিন্দর গোয়েল অসুস্থ ছিলেন দীর্ঘদিন ধরেই। অবশেষে প্রয়াত হলেন ভারতীয় ঘরোয়া ক্রিকেটের কিংবদন্তি এই স্পিনার। রবিবার প্রয়াণের সময় ৭৭ বছর বয়স হয়েছিল তাঁর।

 

স্ত্রী ও পুত্র নীতিন গোয়েলকে রেখে গেছেন রাজিন্দর গোয়েল। নীতিনও ঘরোয়া ক্রিকেটে প্রতিনিধিত্ব করেছেন।

 

রাজিন্দর গোয়েল কখনো আন্তর্জাতিক ক্রিকেট খেলতে পারেননি। ভারতের বিখ্যাত স্পিন ত্রয়ী বেদি-প্রসন্ন-চন্দ্রশেখরদের আড়ালেই থেকে যেতে হয়েছে তাঁকে। কিন্তু তারপরও তিনি হয়ে ওঠেছিলেন কিংবদন্তি।

 

কিন্তু ঘরোয়া ক্রিকেটে রাজিন্দর ছিলেন নিয়মিত মুখ। খেলেছেন ১৫৭টি প্রথম শ্রেণির ম্যাচ ও ৮টি লিস্ট-এ ম্যাচ। যার সূচনা ১৯৫৭-৫৮ মৌসুমে, খেলে গেছেন ২৭ বছর।

 

প্রথম শ্রেণির ক্রিকেটে ৭৫০ উইকেট পাওয়ার বিরল কীর্তিও গড়েন এই বাঁহাতি স্পিনার। এছাড়া রঞ্জি ট্রফিতে রাজিন্দর গোয়েলের সংগ্রহ ৬৩৭টি উইকেট। যা এখন অবধি রঞ্জিতে কোনো বোলারের সর্বোচ্চ শিকার হিসেবে টিকে আছেন।

 

 

আন্তর্জাতিক ক্রিকেট খেলতে না পারলেও দলে ডাক পেয়েছিলেন একবার। ১৯৭৪-৭৫ সালে ক্লাইভ লয়েডের নেতৃত্বে ভারত সফরে এসেছিল ওয়েস্ট ইন্ডিজ ক্রিকেট দল। সেই সফরে বিষাণ সিংহ বেদি বেঙ্গালুরুতে প্রথম টেস্টের দলে ছিলেন না। গোয়েল দলে ঢুকলেও প্রথম একাদশে জায়গা হয়নি তাঁর।

 

রাজিন্দর গোয়েলের মৃত্যুতে ভারতীয় ক্রিকেট বোর্ডের পক্ষ থেকে টুইটারে শোকজ্ঞাপন করা হয়েছে।

 

বিষাণ সিংহ বেদি তাঁর শোকবার্তায় লিখেছেন, ‍‘একজন দুর্দান্ত মানুষ চলে গেল। শান্তিতে থাক গোয়েলি। রঞ্জি ট্রফিকে তুমি উজ্জ্বল করে রেখেছিলে হৃদয় দিয়ে বল করে।’

 

এছাড়াও শোকপ্রকাশ করেছেন শিখর ধাওয়ান, হরভজন সিংরাও।

 

 

১৯৪২ সালের ২০ সেপ্টেম্বর হরিয়ানায় জন্ম গ্রহণ করেন রাজিন্দর গোয়েল। সর্বভারতীয় স্কুল ক্রিকেট প্রতিযোগিতায় সেরা বোলার হয়ে তিনি ১৬ বছর বয়সে নজর কাড়েন। তাঁর দুরন্ত পারফরম্যান্সের সৌজন্যেই উত্তরাঞ্চল সেবার চ্যাম্পিয়ন হয়েছিল। পরবর্তীকালে ঘরোয়া ক্রিকেটে পাটিয়ালা, দক্ষিণ পঞ্জাব, দিল্লি ও হরিয়ানার হয়ে প্রতিনিধিত্ব করা রাজিন্দর প্রথম শ্রেণির ক্রিকেটে খেলে গেছেন ৪৪ বছর বয়স পর্যন্ত। ২০১৭ সালে বোর্ড তাঁকে সি কে নাইডু ট্রফি দিয়ে সম্মান জানিয়েছিল।

শেয়ার করুন :