খেলা মাঠে ফেরানো প্রথম কাজ: কাজী সালাউদ্দিন খেলা মাঠে ফেরানো প্রথম কাজ: কাজী সালাউদ্দিন – SportsTour24

স্পোর্টসট্যুর প্রতিবেদক :: প্রায় সাত মাস ধরে দেশের ফুটবল বদ্ধ দরজার ওপাশে আটকে আছে। জাতীয় দল খেলার মধ্যে এরও আগে থেকেই। মহামারির ঝড়ে ওলট-পালট হয়ে গেছে ঘরোয়া ফুটবলের সূচি। পরিত্যক্ত হয়েছে ২০১৯-২০ মৌসুম। নতুন মৌসুম শুরু হবে ডিসেম্বরের প্রথম সপ্তাহে, ফেডারেশন কাপ দিয়ে।

 

এর আগেই অবশ্য ফুটবলে ফিরছে বাংলাদেশ। আগামী মাসের ১৩ ও ১৭ নভেম্বর ঢাকায় নেপালের বিপক্ষে দুটি আন্তর্জাতিক প্রীতি ম্যাচ খেলবেন জামাল ভুঁইয়া-সোহেল রানারা।

 

দীর্ঘ বিরতি শেষে মাঠে ফুটবল ফেরাটাকে বড় স্বস্তি হিসেবে দেখছেন বাংলাদেশ ফুটবল ফেডারেশনের (বাফুফে) সভাপতি কাজী সালাউদ্দিন। তিনি বলছেন, তাঁদের প্রথম কাজই এখন মাঠে খেলা ফেরানো।

 

আজ মঙ্গলবার ফেডারেশন ভবনে সাংবাদিকদের সঙ্গে আলাপকালে সালাউদ্দিন বলছিলেন, ‘আমাদের প্রথম কাজ হলো মাঠে খেলা ফেরানো। অনেকেই জিজ্ঞাসা করে, জিতবেন না হারবেন। জেতা-হারা এখনই যদি চিন্তা করি….৬ মাস ধরে ফুটবল নাই মাঠে। আমাদের প্রথম উদ্দেশ্য হলো ফুটবলটা মাঠে নামানো।’

 

বাফুফের টানা চারবারের সভাপতি কাজী সালাউদ্দিন জাতীয় দলের জন্য ম্যানেজার নিয়োগ এবং নির্বাচক কমিটি গঠনের কথাও জানিয়েছেন।

 

নেপালের বিপক্ষে প্রীতি ম্যাচ দুটিকে সামনে রেখে বাংলাদেশ দল অনুশীলন শুরু করেছে ম্যানেজার ছাড়াই। বাফুফে সভাপতি জানাচ্ছেন, একজন পেশাদার ম্যানেজার নিয়োগ দিতে চান তাঁরা।

 

‘বিশ্বব্যাপী ম্যানেজার ও কোচ, তারা খেলোয়াড় বাছাই করে। আমি আপনাদের রিকোয়ারম্যান্ট নিয়ে দ্বিমত প্রকাশ করছি না তাহলো কোচ সব খেলা দেখে না। কিছু কিছু হয়তো বাদ পড়ে যায়। সেজন্য হয়তো আমরা এবার ইনিসিয়াল একটা কমিটি করতে পারি যা হবে স্ক্রিনিং কমিটি। যেটা নির্বাচক কমিটিও বলতে পারেন।’

 

‘ম্যানেজার নিয়ে সিদ্ধান্ত নিবে ন্যাশনাল টিমস কমিটি। ম্যানেজার নিয়ে অনেক রকম আলাপ হচ্ছে। এখনও কোনো চূড়ান্ত সিদ্ধান্ত হয়নি। আলোচনা চলছে দুয়েকটা জিনিসের। একটা হলো আমরা একজন পেশাদার ম্যানেজার চাই। কারণ আমাদের খুব একটা টেকনিক্যাল ম্যানেজার দরকার নাই।’

 

ম্যানেজারের দায়িত্বে বাফুফের নির্বাহী কমিটির কেউ এবার দায়িত্ব পাচ্ছেন বলে স্পষ্ট জানিয়ে দিয়েছেন কাজী সালাউদ্দিন।

 

‘আমার ব্যক্তিগত মতামত হলো, আমাদের বোর্ডের কাউকে দরকার বলে আমি মনে করি না। যদি বোর্ডের কাউকে করি তাহলে আগের ম্যানেজারের প্রবলেম কী? আগের ম্যানেজার (সত্যজিৎ দাস রুপু) যে ছিল, সে এই লাইনে অনেক অভিজ্ঞ ছিল। তার থেকে তো অভিজ্ঞ কেউ নাই বোর্ডে। আমার মনে হয় না বোর্ড থেকে কেউ থাকবে।’

শেয়ার করুন :