খেলার জন্য মরিয়া সাব্বির রহমান খেলার জন্য মরিয়া সাব্বির রহমান – SportsTour24

স্পোর্টসট্যুর প্রতিবেদক :: খেলা বন্ধ। কিন্তু সাব্বির রহমান থমকে নেই। ফিটনেস ঠিক রাখতে করোনাকালে ঘাম ঝরিয়েছেন তিনি। এবার স্টেডিয়ামে ঘাম ঝরানোর সুযোগ পেয়েছেন তিনি। এই মিডল অর্ডার ব্যাটসম্যান বলছেন, খেলার জন্য মরিয়া হয়ে আছেন তিনি।

 

বাংলাদেশ ক্রিকেট বোর্ডের (বিসিবি) তত্ত্বাবধানে ঈদ-উল-আযহার আগে কয়েকজন ক্রিকেটার একক অনুশীলন করেন। ঈদের পর ফের শুরু হয়েছে একক অনুশীলন। আগে যারা অনুশীলনে ছিলেন, তাদের সাথে নতুন কিছু মুখও যুক্ত হয়েছে।

 

সাব্বির রহমান করোনাকালে এই প্রথম স্টেডিয়ামে অনুশীলন করছেন। আজ রোববার শের-ই-বাংলা জাতীয় স্টেডিয়ামে অনুশীলন শেষে তিনি বলেন, ‘প্রায় চার মাস পর এই মাঠে আসা…..এই অনুভূতি প্রকাশ করতে পারবো না, খুব ভালো লাগছে। অনেক দিন পর অনুশীলন শুরু করলাম মিরপুর স্টেডিয়ামে। ব্যাটিং করলাম, বিসিবি যেসব নির্দেশনা দিয়েছে সেগুলো মেনে চলছি।’

 

‘অনেকদিন ধরেই আমাদের আন্তর্জাতিক ও ঘরোয়া ক্রিকেট বন্ধ আছে। সব খেলোয়াড়ই কবে খেলা শুরু হবে, সেদিকে তাকিয়ে আছে। মাঝে মাঝে হতাশাও কাজ করছে। অনেক দিন পার হয়ে গেছে।’

 

সাব্বির বলেন, ‘ইংল্যান্ড-পাকিস্তান যখন খেলছে বা ওয়েস্ট ইন্ডিজ যখন খেলেছে তখন খুব ভালো লেগেছে। অন্তত খেলা তো শুরু হয়েছে। আমাদের দেশে যদি সব ঠিকঠাক থাকে ইনশাল্লাহ আমরা খুব তাড়াতাড়ি আন্তর্জাতিক ম্যাচ খেলব। খেলার জন্য খুব মরিয়া হয়ে আছি। এর জন্য আমরা অনুশীলন করছি। নিজেদের ফিট রাখার জন্য এবং ভালো কিছু করার জন্য। আশা করি, খেলা শুরু হলে ভালো কিছু করবো।’

 

ঢাকা প্রিমিয়ার লিগ এক রাউন্ড হওয়ার পরই করোনার কারণে স্থগিত হয়ে যায়। সাব্বির রহমান ২ মার্চ রাজশাহীতে চলে যান। প্রথমে কয়েকদিন বিশ্রাম নিয়েছেন। পরে শুরু করেন অনুশীলন।

 

তিনি বলছিলেন, ‘বাসায় কিছু কাজ ছিল ফিটনেসের, সেগুলো করেছি। এরপর রাজশাহীতে ইনডোরের সুবিধা নিয়েছি একা একা। ক্লেমনের জিমনেসিয়াম ব্যবহার করতে পেরেছি। ওখানে আমি সন্ধ্যা বা রাতে একা একা কাজ করেছি। আর রানিংয়ের জন্য বাসার সিঁড়িকে কাজে লাগিয়েছি। পাশে হর্টিকালচার সেন্টার ছিল, ওখানের মাঠ ব্যবহার করেছি। লোকজন খুব একটা থাকতো না সেখানে। ক্লেমন ইনডোরে ব্যাটিং, বোলিং অনুশীলন করেছি।’

শেয়ার করুন :