কোহলি ব্যর্থ, ‘হিটম্যানে’ রক্ষা ভারতের কোহলি ব্যর্থ, ‘হিটম্যানে’ রক্ষা ভারতের – SportsTour24

স্পোর্টসট্যুর ডেস্ক :: প্রথম দিনের প্রথম ঘণ্টাতেই আশঙ্কার কালো মেঘ দেখা দিয়েছিল ভারতীয় শিবিরে। দিনের শেষে সেই দুর্যোগের ঘনঘটা অনেকটাই কাটল ‘হিটম্যান’খ্যাত রোহিত শর্মার জন্য। ইংল্যান্ডের বিপক্ষে চেন্নাইয়ে দ্বিতীয় টেস্টের প্রথম দিনের শেষে অনেকটাই ভালো জায়গায় ভারত। ৮৮ ওভারে ছয় উইকেট হারিয়ে ৩০০ তুলেছে তারা। ক্রিজে রয়েছেন ঋষভ পন্থ (৩৩*) এবং অক্ষর প্যাটেল (৫*)।

 

দিনের দ্বিতীয় ওভারেই শুভমন গিলকে পায়ের ফাঁদে বন্দি করেন অলি স্টোন। জোফ্রা আর্চার ছিটকে যাওয়ায় আচমকাই দলে ঢোকেন তিনি। খানিক পরেই বিরাট কোহালিকে বোল্ড করে গোটা চিপক স্টেডিয়ামকে চুপ করিয়ে দেন মইন আলী।

 

সবে পেসারদের সরিয়ে স্পিনারদের আনেন জো রুট। মইনের বল ড্রাইভ করে কভার দিয়ে মারতে যান কোহালি। অন্যান্য সময়ে নিখুঁতভাবে তাঁর ব্যাট থেকে বল বাউন্ডারির দিকে ছুটলেও এবার পরাস্ত হন। ব্যাট এবং প্যাডের ফাঁক দিয়ে গলে মইনের বল তাঁর অফ স্টাম্প নড়িয়ে দেয়। বিস্মিত কোহালি ভাবতেই পারেননি এভাবে আউট হতে পারেন। তাই তো হতবিহ্বল হয়ে খানিকক্ষণ দাঁড়িয়ে থাকলেই ক্রিজেই!

 

চেতেশ্বর পূজারা আসার পর রোহিতের সঙ্গে তিনি দলের হাল ধরেন। পূজারা স্বভাবোচিত ধীর-স্থির ভঙ্গিতে খেললেও রোহিত প্রথম থেকেই ছিলেন মারকুটে। বলের চেয়ে রান সংখ্যা সব সময়েই বেশি ছিল। কিন্তু লিচের বলে স্টোকসের হাতে ক্যাচ তুলে পূজারা ফিরতেই দ্রুততায় রাশ টানেন রোহিত। লাঞ্চের পর তাঁকে একদম শান্ত মেজাজে পাওয়া যায়। ধরে ধরে ইনিংস গড়েন।

 

চোটের কারণে রোহিতকে অস্ট্রেলিয়া সিরিজের প্রথম দুই টেস্টে তাঁকে পাওয়া যায়নি। ফিরে এসে পরের দুই টেস্টেও আহামরি কিছু করতে পারেননি। ইংল্যান্ডের বিরুদ্ধে প্রথম টেস্টেও ব্যর্থ হন। কিন্তু আসল সময়ে জ্বলে ওঠে হিটম্যানের ব্যাট। ধীরে ধীরে দেড়শো পেরিয়ে যান। দুশোর সম্ভাবনাও দৃঢ় ছিল। কিন্তু মুহূর্তের ভুলে ফিরতে হয় মইন আলীর হাতে ক্যাচ দিয়ে।

সাধারণত লম্বা জুটির ক্ষেত্রে একজন ফিরে গেলে আর একজনও বেশিক্ষণ থাকতে পারেন না। রাহানের ক্ষেত্রেও ব্যতিক্রম হয়নি। রোহিতের কিছুক্ষণ পরেই ফেরেন তিনি। আউট হন কিছুটা অধিনায়কের ভঙ্গিতেই। তফাৎ হল, কোহালি ড্রাইভ করতে গিয়েছিলেন, রাহানে সুইপ। দু’জনেরই ব্যাট-প্যাডের ফাঁক দিয়ে বল গলে উইকেট ভেঙে যায়।

 

ব্যাট হাতে ভরসাযোগ্য রবিচন্দ্রন অশ্বিনকে নিজেই তুলে নেন রুট। তবে পন্থকে উইকেটে যথেষ্ট দৃঢ় লেগেছে। বল ইতিমধ্যেই যা ঘুরছে, তাতে ৩৫০ রান স্কোরবোর্ডে উঠলেই কোহালিরা অনেকটা স্বস্তিতে থাকবেন বলে মনে করছেন বিশেষজ্ঞরা।

 

আগের দিনই সহ-অধিনায়ক অজিঙ্ক রাহানে বলেছিলেন, প্রথম দিন থেকেই বল ঘুরবে। কার্যত দেখা গেল, প্রথম ঘণ্টা থেকেই বল ঘুরছে। দিনের শেষে স্পিনারদের ৫টি উইকেট প্রমাণ করে দিল, রুটদের আসল পরীক্ষা এখনও বাকি।

শেয়ার করুন :