কিংবদন্তি ডিন জোন্সের বিদায় কিংবদন্তি ডিন জোন্সের বিদায় – SportsTour24

স্পোর্টসট্যুর ডেস্ক :: অস্ট্রেলিয়ার সাবেক ব্যাটসম্যান ডিন মার্ভিন জোন্স আর নেই। হৃদযন্ত্রের ক্রিয়া বন্ধ হয়ে মারা গেছেন ৫৯ বছর বয়সী এই কিংবদন্তি।

 

ইন্ডিয়ান প্রিমিয়ার লিগ (আইপিএল) চলাকালে বিশ্লেষক হিসেবে কাজ করতে ডিন জোন্স ছিলেন ভারতের মুম্বাইয়ে। স্টার স্পোর্টসের হয়ে কাজ করছিলেন তিনি। সেখানেই বৃহস্পতিবার দুপুরে হার্ট অ্যাটক হয় তাঁর। এরপর চিরবিদায়।

 

মেলবোর্নে জন্মগ্রহণকারী জোন্সের আন্তর্জাতিক ক্যারিয়ার বেশ সমৃদ্ধ। ৫২ টেস্টে ৪৬.৫৫ গড়ে তাঁর রান ৩৬৩১। সেঞ্চুরি করেন ১১টি, হাফ সেঞ্চুরি ১৪টি। চেন্নাইয়ে ভারতের বিপক্ষে করেছিলেন অসাধারণ ডাবল সেঞ্চুরিও। যেটি তিনি করেছিলেন নিজের তৃতীয় টেস্টে।

 

১৬৪ ওয়ানডেতে ৪৪.৬১ গড়ে জোন্সের রান ৬০৬৮। ৭ সেঞ্চুরির সাথে আছে ৪৬ হাফ সেঞ্চুরিও।

 

১৯৮৪ সালের জানুয়ারিতে পাকিস্তানের বিপক্ষে ওয়ানডে দিয়ে আন্তর্জাতিক ক্রিকেটে অভিষিক্ত হন ডিন জোন্স। ওই বছরের মার্চে ওয়েস্ট ইন্ডিজের বিপক্ষে টেস্টেও অভিষেক ঘটে তাঁর।

 

অস্ট্রেলিয়ার ১৯৮৭ বিশ্বকাপজয়ী দলের অন্যতম সদস্য ছিলেন ডিন জোন্স। অ্যালান বোর্ডারের নেতৃত্বাধীন ওই দলটি সেবার প্রথম বিশ্বকাপ জিতেছিল ইডেনের গার্ডেনে।

 

খেলোয়াড়ি জীবনের ইতি টানার পর ১৯৯৮ সাল থেকে কোচিং ও ধারাভাষ্যে মনোযোগী হন ডিন জোন্স। নিখুঁত বিশ্লেষণী ক্ষমতার কারণে তিনি ‘দ্য প্রফেসর’ তকমা পান।

 

আইপিএল শুরুর আগেই তিনি ভারতে এসেছিলেন। মুম্বাইয়ের সেভেন স্টার হোটেলে অবস্থান করছিলেন এই সাবেক তারকা।

 

ডিন জোন্স কাজ করেছেন বাংলাদেশ প্রিমিয়ার লিগেও (বিপিএল)। ২০১২ সালে চিটাগং কিংসের কোচ হিসেবে এসেছিলেন তিনি। পাকিস্তান সুপার লিগে (পিএসএ) ইসলামাবাদ ইউনাইটেড এবং করাচি কিংসেও কোচ হিসেবে কাজ করেন তিনি। কাজ করেছেন আফগানিস্তান জাতীয় দলের সাথেও।

 

২০১৯ সালে অস্ট্রেলিয়ান ক্রিকেট হল অব ফেম-এ স্থান দেওয়া হয় এই কিংবদন্তিকে।

 

ডিন জোন্স বিতর্কেও জড়িয়েছিলেন একবার। ২০০৬ সালে দক্ষিণ আফ্রিকার গ্রেট ব্যাটসম্যান হাশিম আমলাকে ‘সন্ত্রাসী’ বলে বিতর্ক উসকে দেন তিনি। তাঁর সঙ্গে ধারাভাষ্যকারের চুক্তি বাতিল করে সংশ্লিষ্ট প্রতিষ্ঠান। পরে ‘অনুতপ্ত’ বলে মন্তব্য করে পার পান তিনি।

শেয়ার করুন :