এবার তাহলে রোনালদো-সুয়ারেজ জুটি? এবার তাহলে রোনালদো-সুয়ারেজ জুটি? – SportsTour24

স্পোর্টসট্যুর ডেস্ক :: উরুগুয়ের স্ট্রাইটার লুইস সুয়ারেজ বার্সেলোনায় যোগ দেন ২০১৪ সালে। এখন অবধি খেলেছেন ২৮৩ ম্যাচ, গোল করেছেন ১৯৮টি। ২০১৯-২০ মৌসুমেই দলের হয়ে লিওনেল মেসির পর সর্বোচ্চ ২১ করেছেন সুয়ারেজ।

 

বার্সার হয়ে ছয় বছরে শিরোপা জিতেছেন ১৩টি। এর মধ্যে আছে চারটি লা লিগা, একটি চ্যাম্পিয়ন্স লিগ।

 

সুয়ারেজের পারফরম্যান্স খারাপ? মোটেও না! মেসির ছায়ায় থেকেও উরুগুয়াইন যথেষ্ট আলো ছড়িয়েছেন স্পেনের ফুটবলে।

 

কিন্তু তবু লুইস সুয়ারেজকে নিয়ে সন্তুষ্ট নয় বার্সেলোনা! দলটির নতুন কোচ রোনাল্ড কোম্যান এসেই জানিয়ে দিয়েছেন, আগামী মৌসুমে তাঁর পরিকল্পনায় নেই সুয়ারেজ!

 

এতে করে বার্সায় সুয়ারেজের ভবিষ্যত অনিশ্চিত। কিন্তু সেই অনিশ্চয়তাকে নিশ্চয়তায় পরিণত করতে আগ্রহী ইতালির শীর্ষ ক্লাব জুভেন্টাস! ক্রিস্টিয়ানো রোনালদোর সঙ্গে জুটি হিসেবে সুয়ারেজকে মাঠে নামাতে চায় তাঁরা।

 

জুভেন্টাস চ্যাম্পিয়ন্স লিগের শেষ ষোলো থেকে বিদায়ের পর দলটিতে মারিও সাররি কোচের পদ হারান। নতুন কোচ হিসেবে দলটিরই সাবেক কিংবদন্তি মিডফিল্ডার আন্দ্রেয়া পিরলো। দায়িত্ব নিয়ে পিরলোও নিচ্ছেন কঠিন সব সিদ্ধান্ত। তিনি জানিয়ে দিয়েছেন, আর্জেন্টাইন স্ট্রাইকার গঞ্জালো হিগুয়েইনকে জুভেন্টাসে আগামী মৌসুমে প্রয়োজন নেই। তাঁর সঙ্গে চুক্তিও বাতিল করছে জুভেন্টাস।

 

হিগুয়েইন বিদায় নিলে জুভেন্টাসে প্রয়োজন নতুন স্ট্রাইকার। সেই স্ট্রাইকার হতে পারেন সুয়ারেজ।

 

রোনালদোর গোল চ্যাম্পিয়ন্স লিগের সেরা (ভিডিওসহ)

 

ইতালির বেশ কয়েকজন ক্রীড়া সাংবাদিক খবর দিয়েছেন, আন্দ্রে পিরলোর আগ্রহের তালিকায় উপরের সারির দিকেই আছে লুইস সুয়ারেজের নাম। তবে জুভেন্টাস এখনই সুয়ারেজের বিষয়ে আগবাড়িয়ে কিছু বলবে না। কারণ, তাঁরা অপেক্ষায় আছে বার্সা চুক্তি বাতিল করবে সুয়ারেজের সঙ্গে। তাহলে দলবদলের ক্ষেত্রে বার্সেলোনাকে কোনো ফি দিতে হবে না জুভেন্টাসের। ‘টাকা বাঁচাতে’ আপাতত তাই মুখে কুলুপ জুভেন্টাস কোচের।

 

ফুটবল দুনিয়ায় ক্রিস্টিয়ানো রোনালদো ও লিওনেল মেসিকে প্রবল প্রতিদ্বন্দ্বী ভাবা হয়। এতো দিন রোনালদোর প্রতিদ্বন্দ্বী মেসির সঙ্গে জুটি বেঁধে খেলেছেন সুয়ারেজ। এবার কী তবে মেসির প্রতিদ্বন্দ্বী রোনালদোর সঙ্গে জুটি বাঁধবেন? উত্তর তোলা রইলো সময়ের হাতে।

 

তবে দলবদলের ক্ষেত্রে সুয়ারেজ সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে নানা কানাঘুষা দেখে বিরক্ত। তিনি ইনস্টাগ্রামে জানিয়ে দিয়েছেন, ‘আমার যখন প্রয়োজন হবে ,তখন আমি নিজেই কথা বলব।’

শেয়ার করুন :