আর্চারকে দলে প্রয়োজন, বলছেন অ্যান্ডারসন আর্চারকে দলে প্রয়োজন, বলছেন অ্যান্ডারসন – SportsTour24

স্পোর্টসট্যুর ডেস্ক :: জফ্রা আর্চার যেদিন জ্বলে ওঠেন, সেদিন প্রতিপক্ষ পুড়ে ছাই হয়ে যায়। গতিময় এই বোলারকে যে কোনো দলই একাদশে দেখতে চাইবে। কিন্তু আর্চারকে প্রায় সময়ই ‘উটকো ঝামেলা’ পোহাতে হয়।

 

এবার ‘বায়ো সিকিউর’ নীতি ভেঙে ওয়েস্ট ইন্ডিজের বিপক্ষে দ্বিতীয় টেস্ট থেকে বাদ পড়েন, দেন জরিমানাও। নিজের ভুল স্বীকার করে ক্ষমাও চান আর্চার। কিন্তু তারপরও তাঁকে বর্ণবাদের শিকার হতে হয়েছে।

 

উদ্ভূত পরিস্থিতিতে আর্চার মানসিকভাবে শতভাগ ফিট না থাকলে তৃতীয় টেস্টে না খেলার ইঙ্গিত দিয়েছেন।

 

তবে ইংল্যান্ডের অভিজ্ঞ পেসার জিমি অ্যান্ডারসন বলছেন, আর্চারকে দলে প্রয়োজন।

 

টেস্টে সর্বোচ্চ উইকেটশিকারি পেসার অ্যান্ডারসন বলেন, ‘আমি নিশ্চিত সে খেলবে। কারণ, ম্যাচটা সিরিজের জন্য গুরুত্বপূর্ণ ম্যাচ। তাঁকে দলে প্রয়োজন। সে তাঁর মানসিক অবস্থা নিয়ে কথা বলেছে। এটা নিয়ে নিশ্চয়ই কোচ ও অধিনায়ক তাঁর সঙ্গে বসবে।’

 

ওয়েস্ট ইন্ডিজের বিপক্ষে ইংল্যান্ডের চলমান টেস্ট সিরিজ ১-১ সমতায় আছে। প্রথমটি ক্যারিবিয়ানরা, দ্বিতীয়টি ইংলিশরা জিতেছে। কাল থেকে ম্যানচেস্টারে সিরিজের তৃতীয় টেস্টের লড়াইয়ে নামবে দুই দল।

 

সাউদাম্পটনে প্রথম টেস্ট খেলে ম্যানচেস্টারে ফিরতে ইংলিশ ক্রিকেটারদের জন্য কোনো বাসের ব্যবস্থা ছিল না। প্রত্যেক ক্রিকেটার নিজ নিজ গাড়ি নিয়ে ফিরেন। এই ফেরার পথে আর্চার ‘বায়ো সিকিউর’ বা জৈব নিরাপত্তা বলয় ভাঙেন বলে জানায় ইংল্যান্ড ক্রিকেট বোর্ড। এজন্য দ্বিতীয় টেস্ট শুরু হওয়ার মাত্র ৩ ঘন্টা আগে তাঁকে দল থেকে বাদ দেওয়া হয়, পাঠানো হয় আইসোলেশনে।

 

পরে আর্চারকে জরিমানাও করে বোর্ড। আর্চার নিজের ভুলের জন্য ক্ষমা চান।

 

কিন্তু সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমগুলোতে আর্চারের গায়ের রঙ নিয়ে বর্ণবাদী মন্তব্য করা হয়। এসব মন্তব্যে মানসিকভাবে বিপর্যস্ত এই পেসার।

 

ডেইলি মেইলের এক কলামে আর্চার লিখেছেন, ‘আমাকে ১০০ ভাগ তৈরি থাকতে হবে মানসিকভাবে। যেন আমি নিজেকে ক্রিকেট মাঠে উজাড় করে দিতে পারি।’

 

মানসিকভাবে শতভাগ ফিট না থাকলে তিনি না খেলার ইঙ্গিত দেন।

শেয়ার করুন :