অস্ট্রেলিয়া ছাড়া বাংলাদেশের সব সিরিজ ‘নিশ্চিত’ অস্ট্রেলিয়া ছাড়া বাংলাদেশের সব সিরিজ ‘নিশ্চিত’ – SportsTour24

স্পোর্টসট্যুর প্রতিবেদক :: অস্ট্রেলিয়ার বিপক্ষে বাংলাদেশে খেলেছে মোটে ৬টি টেস্ট ম্যাচ। অন্য সব টেস্ট খেলুড়ে দেশগুলোর বিপক্ষে যেখানে সংখ্যাটা দুই অঙ্গে ছুঁয়েছে, সেখানে অজিদের বিপক্ষে এতো কম ম্যাচ তামিম-মুশফিকদের নিশ্চয়ই পোড়ায়।

 

আইসিসি টেস্ট চ্যাম্পিয়নশিপের দুটি ম্যাচ খেলতে গত জুনে বাংলাদেশে আসার কথা ছিল অস্ট্রেলিয়ার। কিন্তু মহামারি করোনার কারণে সিরিজটি স্থগিত হয়ে যায়।

স্থগিত হওয়া ওই সিরিজটি ফের কবে হবে, এ নিয়ে দেখা দিয়েছে অনিশ্চয়তা।

 

বাংলাদেশ ক্রিকেট বোর্ড (বিসিবি) প্রধান বলছেন, করোনার কারণে স্থগিত হওয়া অন্য সব সিরিজ ফের আয়োজনের বিষয়টি ‘নিশ্চিত’ করতে পারলেও অস্ট্রেলিয়া সিরিজ নিয়ে আছে শঙ্কা। কারণ, সিরিজ আয়োজনের সময় অস্ট্রেলিয়ার সঙ্গে বাংলাদেশের মিলছে না।

 

করোনার কারণে বাংলাদেশের পাকিস্তান সফর, আয়ারল্যান্ডের বিপক্ষে খেলতে যুক্তরাজ্য সফর, শ্রীলঙ্কা সফর, দেশের মাটিতে অস্ট্রেলিয়া ও নিউজিল্যান্ডের বিপক্ষে সিরিজ স্থগিত হয়ে যায়। করোনার বিরতি কাটিয়ে আগামী ২৪ অক্টোবর বাংলাদেশ ক্রিকেটে ফিরছে। শ্রীলঙ্কা সফরে ওই দিন শুরু হবে তিন ম্যাচ সিরিজের প্রথম টেস্ট ম্যাচ।

 

আজ শনিবার মিরপুরে শের-ই-বাংলা জাতীয় ক্রিকেট স্টেডিয়ামে বিসিবি সভাপতি নাজমুল হাসান পাপন বলেন, ‘আমরা কিন্তু এরই মাঝে কিছু খেলা মিস করে ফেলেছি। আমাদের বেশ কিছু সিরিজ পিছিয়ে গেছে। এই খেলাগুলো আমরা পরে কবে খেলব, এর সূচি তৈরি করার প্রস্তুতি মোটামুটি নিয়ে রেখেছি।’

 

‘অস্ট্রেলিয়ার সফর ছাড়া বাকি সবই আমরা নিশ্চিত করতে পেরেছি। শুধু ওদেরটা পারিনি। ওদের সঙ্গে আমাদের টাইম মেলাতে পারছি না। বাকিগুলো আমরা সবই আবার খেলতে পারব।’

 

বাংলাদেশ ২০০৩ সালে অস্ট্রেলিয়া সফরে দুই ম্যাচের টেস্ট সিরিজ খেলেছিল। অস্ট্রেলিয়া বাংলাদেশে এসে ২০০৫ ও ২০১৭ সালে দুটি করে ম্যাচের টেস্ট সিরিজ খেলে যায়।

 

২০১৮ সালে দুটি টেস্ট ও তিনটি ওয়ানডে খেলতে ক্যাঙারুর দেশে যাওয়ার কথা ছিল টাইগারদের। কিন্তু সিরিজটি ‘আর্থিকভাবে লাভজনক হবে না’ অজুহাতে বাতিল করে দেশ অস্ট্রেলিয়া।

শেয়ার করুন :